May 2020

বন্দরে টিম মাসুম চেয়ারম্যান Covid-19 দাফন কমিটি গঠন

নিউজ ডেস্ক :  নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন এর সফল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদ মাসুম এর নেতৃত্বে টিম মাসুম চেয়ারম্যান Covit-19 দাফন কমিটি গঠন সম্পন্ন হয়েছে।
২৮ শে মে বৃহস্পতিবার সকাল ১০ ঘটিকায় চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ এর ব্যক্তিগত কার্যালয়ে এই কমিটি গঠন সভা অনুষ্ঠিত হয়।
করোনা ভাইরাস (Covit-19) এখন সারাবিশ্বে মহামারি আকার ধারণ করেছে। এই করোনাভাইরাসের এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। তাই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও গবেষকদের পরামর্শ মতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখে নিয়মিত হাত ধুয়ে এই ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রচেষ্টা বিদ্যমান।
এদিকে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে কোন মানুষ মৃত্যুবরণ করলে তার দাফন-কাফনে এগিয়ে আসে না পরিবারের লোকজন ও আত্মীয়-স্বজন। তাই এই মহামারীতে আক্রান্ত মৃত ব্যক্তির সৎকার করে থাকেন সমাজের কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।
তারই ধারাবাহিকতায় বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুম আহমেদ মাসুম এর নেতৃত্বে ২১ সদস্য বিশিষ্ট টিম মাসুম চেয়ারম্যান #Covit-19 দাফন কমিটি গঠন করা হয়েছে।
এসময়  চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ বলেন. পবিত্র কুরআনে আছে,  সকল প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। জন্মিলে মরিতে হবে এটাই সত্য এবং স্বাভাবিক । তবে দুঃখজনক বিষয় এই ভাইরাসের কারণে আপন জনের মৃত্যু তোও কেউ কাছে আসছে না ।
এমনই এক ঘটনা আমাকে ভাবিয়ে তুলেছে , আমার ইউনিয়নে গত ২৫ মে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়। কিন্তু তার লাশটি অ্যাম্বুলেন্স থেকে নামানোর জন্য লোক পাওয়া যাচ্ছিল না। পরবর্তীতে কাউন্সিলর খোরশেদ আলমের নেতৃত্বে একটি স্বেচ্ছাসেবী  টিম এসে লাশটি দাফন কাপন সম্পন্ন করেন।
এসময় তিনি আরও বলেন , আমি যদি আজ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাই  তাহলে আমাকে ও কেউ ধরবে না - এটাই বাস্তব।
তাই আজ আমি এই কমিটি গঠনের উদ্যোগ নিয়েছি যাতে করে আমার ইউনিয়ন তথা বন্দর উপজেলায় যদি কেহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন এবং তার লাশ দাফনে তার আত্মীয়-স্বজন এগিয়ে নাও আসে আমরা ধর্মীয় রীতিনীতি অনুযায়ী তার লাশ দাফন করব। আমি দোয়া করি সবাইকে আল্লাহ পাক  সুস্থ রাখুক। আল্লাহ এই মহামারী উঠিয়ে নেও। আর যেনো কারো করোনা  উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করতে না হয় । আমিন
উল্লেখ্য যে গত ২৫ শে মে চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ তার ফেসবুক আইডি থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির লাশ দাফন করার জন্য কমিটি গঠন করা হবে। তার ডাকে সাড়া দিয়ে  শত শত মানুষ স্বেচ্ছায় এই কমিটিতে কাজ করার মত প্রকাশ করেন। তাদের মধ্যে বাছাই করে আজ সকাল ১০ ঘটিকায় কমিটি গঠন সম্পন্ন করা হয়।
টিম মাসুম চেয়ারম্যান Covit-19 দাফন কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন-মোঃ শাহ আলম মুন্সী পিতাঃ মোতালেব ।  মাওলানা মোঃ মাহবুব পিতা আবুল কাশেম, মোঃ মামুন পিতা মোঃ আলী আকবর, মঞ্জুরুল হাসান পিতা হাজী হাবিবুল্লাহ ব্যাপারী,  মনির হোসেন  পিতা আলা উদ্দিন সিকদার, মোঃ মারুফ   পিতা হাজী বেলায়েত হোসেন, মোঃ নাদিম পিতা নুরুল হক মেম্বার, মোঃ মঈন আহম্মেদ পিতা আঃ সোবাহান, মোঃ সাকিল পিতা আবু হানিফ,  আঃ রহমান পিতা কাসেম, মোঃ হামিদুল্লাহ দিলু  পিতা মোঃ আলীনূর , মোঃ আল আমিন পিতা বিল্লাল হোসেন, মোঃ হুমায়ন পিতা আফতাব উদ্দিন,  হাজ্বী মোঃ ছানাউল্লাহ মুন্সী পিতা আলা উদ্দিন,মোঃ ইয়াছিন পিতা মোঃ জাহাঙ্গীর, মোঃ সোহাগ মিয়া  পিতা মৃত মনির হোসেন , নূর মোহাম্মদ সুজন পিতা মৃত মনির হোসেন,  মোঃ মনির হোসেন পিতা ইয়াকুব আলী মোঃ ইয়াসিন  পিতা অলি উল্লাহ মুন্সী, মোঃ জাঙ্গীর আলম  পিতা হাবীবুল্লাহ।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে ধামগড়ের সর্বস্তরের সবাই কে আওয়ামীলীগ নেতা মোশারফ মোল্লার অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : বন্দরের ধামগড় ইউনিয়নের সর্বস্তরের সবাই কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। আওয়ামীলীগ নেতা মোশারফ
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে জানান সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন। জানিয়েছেন। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।

স্বাস্থ্যবিধি ও করোনা ভাইরাসে সর্তকতা মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে দেওয়ান কামালের অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁও উপজেলা সর্বস্তরের সবাই কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। নারায়ণগঞ্জ জেলা তাঁতীলীগের সহ সভাপতি দেওয়ান কামাল।
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে দেয়া এক শুভেচ্ছা বিবৃতিতে তিনি জানান, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদেরকে এবং সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা সেই সাথে ধামগড়ের প্রতিটি ওয়ার্ডের সর্বস্তরের সবাই কে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
আসুন আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত একটি সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ে তোলার বিষয়ে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।

জন সচেতনতা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে সকলকে সোনারগাঁ রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি আবদুস সাত্তার প্রধানের অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁয়ের সর্বস্তরের সবাই কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।  সোনারগাঁও রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি, দৈনিক ভোরের কাগজ,দৈনিক মানব কন্ঠ,৭১ টিভির সোনারগাঁও প্রতিনিধি আবদুস সাত্তার প্রধান।
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে জানান সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে সকলকে নজরুল ইসলাম (বাদশা) অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন সর্বস্তরের সবাই কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন ধামগড় ইউনিয়নের যুবলীগ সভাপতি পদপ্রার্থী নজরুল ইসলাম (বাদশা)
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে দেয়া এক শুভেচ্ছা বিবৃতিতে তিনি জানান ‘ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদেরকে এবং সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।


স্বাস্থ্যবিধি ও করোনা ভাইরাসে সর্তকতা মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে চেয়ারম্যান মাসুমের সবাই কে অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন সর্বস্তরের সকল কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদ।
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে দেয়া এক শুভেচ্ছা বিবৃতিতে তিনি জানান, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদেরকে এবং সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা সেই সাথে ধামগড়ের প্রতিটি ওয়ার্ডের সর্বস্তরের সবাই কে আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
আসুন আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত একটি সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ে তোলার বিষয়ে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে সকলকে মোস্তাফিজুর রহমান মাসুমের অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সোনারগাঁও উপজেলা সর্বস্তেরর সকল কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম।
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে দেয়া এক শুভেচ্ছা বিবৃতিতে তিনি জানান, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদেরকে এবং সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম আরো বলেন।
আসুন আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে ও জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত একটি সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ে তোলার বিষয়ে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে সকলকে মোশারফ মোল্লার অনুরোধ

নিউজ ডেস্ক : বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন ওসর্বস্তরের সবাই কে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন ধামগড় ইউনিয়নের আওয়মী যুবলীগ নেতা মোশারফ মোল্লা
ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গণমাধ্যমকে দেয়া এক শুভেচ্ছা বিবৃতিতে তিনি জানান ‘ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীদেরকে এবং সমগ্র মুসলিম উম্মাহর প্রতি ঈদ-উল-ফিতরের আগাম অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি। ঈদ ভ্রাতৃত্ববোধ শিক্ষা দেয় ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে আনন্দের এক সূতায় বেঁধে দেয়। হিংসা বিদ্বেষ ও ধনী-গরীবের ভেদাভেদ ভুলে সবাই নিরাপদে ও সুস্থ্যতার সহিত ঈদ উদযাপন করবে বলে আমরা দোয়া কামনা করছি।
তার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি সবাই মেনে চলুন ও নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুন। আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই যাতে আল্লাহ আমাদেরকে এই গজব থেকে মুক্তি দেন’।

সাংবাদিকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌছে দিলেন জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম

নিউজ ডেস্ক : আজকের সোনারগাঁওঃ সোনারগাঁ রিপোর্টার্স ক্লাবের সাংবাদিকদের পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন ও জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম। এ সময় সকল সাংবাদিকদের শুভেচ্ছা জানিয়ে মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম  বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতর সবার জীবনে বয়ে আনুক অনাবিল সুখ ও শান্তি । করোনার মহামারিতে সাংবাদিক পেশা কঠিন থেকে আরোও কঠিন হয়ে পড়েছে। সাংবাদিকরা সাহস নিয়ে এই মহামারিতে সামনে থেকে দেশ ও জাতির জন্য কাজ করে যাচ্ছে এজন্য  সকল সাংবাদিকদের সাধুবাদ জানান  তিনি । নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন এর সহযোগিতায়  সোনারগাঁ রিপোর্টার্স ক্লাবের সকল সাংবাদিকদের মাঝে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার চাল, ডাল সেমাই,চিনি,তেল,দুধ,সহ বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম ।
সোনারগাঁ রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি আব্দুস ছাত্তার প্রধান জেলা পরিষদের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুমকে পবিত্র ইদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানানো সহ দুর্দিনে সাংবাদিকদের কথা মনে রেখে তাদের পাশে থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

বন্দরে মালিবাগ "রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশন" উদ্যেগে
পাঁচশত পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন

বন্দর প্রতিনিধিঃ--বিখ্যাত গায়ক সেই ভূপেন হাজারীর কন্ঠে- মানুষ মানুষের জন্য-জীবন জীবনের জন্য- একটু সহানুভূতি-মানুষ কি পেতে পারে না ও বন্ধু-মানুষ মানুষের জন্য---? বিশ্বময় মহামারির অভিশপ্ত নাম কোবিড-১৯। যার বৈজ্ঞানিক নাম করোনা ভাইরাস ভাইরাস জনিত মহামারীর কারণে জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশ লকডাউন আতংকে দিশেহারা। যেখানে কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে অসহায় দিনমজুর। কার্যত লকডাউন থাকার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া নিম্নবিত্ত ও হতদরিদ্র পাঁচ শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করেছেন নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউপির মালিবাগ এলাকার বিশিষ্ট দানবীর সমাজ সেবক "রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশন " এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আনোয়ার হোসেন।
সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষের সাহায্যের পাশাপাশি এবার সমাজের মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে "রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশনের" প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আনোয়ার হোসেন ও পরিবারবর্গ। ফাউন্ডেশনের পরিচালাকের দায়িত্ব পালন করেন তারই পুত্র প্রফেসর আকবর মোঃ শওকত। মূলত "রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশ"একটি স্বেচ্ছাসেবী সমাজ উন্নয়নমূলক সংগঠন। তাই আজ ২২ই মে ২০২০ পবিত্র শুক্রবার ২৮ই রমজান বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউপির মালিবাগ এলাকায় "রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশন" এর কর্নধার বিশিষ্ট দানবীর ও সমাজ সেবক আনোয়ার হোসেন তার বাস ভবনে পাঁচশত মধ্যবিত্ত ও অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী প্যাকেট উপহার সরুপ বিতরণ করেন। যা করোনা ভাইরাস সংক্রমনরোধে নিজ দায়িত্বে প্রতিটি ঘরে ঘরে ঈদ উপহার পৌছে দেন। যার প্রতিটি প্যাকেটে পঁচিশ কেজী চাল একটি শাড়ি ও একটি লুঙ্গি।
এছাড়া ধামগড় ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ডের অসহায় দুঃস্থ্য পরিবারের বাড়ি বাড়ি ঈদ উপহার সামগ্রীর প্যাকেট পৌছিয়ে দেন। দুই ইউনিয়নের পাঁচ শতাধিক পরিবারে মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণের জন্য স্থানীয় নেতৃবৃন্দদের নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিশ্ববাসীর শান্তি ও মঙ্গল কামনায় মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করেন।উপহার সামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে ছিল পঁচিশ কেজী চাল,একটি শাড়ি ও একটি লুঙ্গি। এছাড়া পূর্বেও প্রথম ধামে একশত পরিবারকে ত্রিশ কেজী করে চাল বিতরন করছেন। পরবর্তী দ্বিতীয় ধাপে তিনশত পরিবারকে গরু জবাই করে গোশত বিতরন করেছেন। পাশাপাশি ফাউন্ডেশনের পক্ষে দরিদ্র পরিবারের অনেক সদস্যকেই অটোরিক্সা ও ভ্যান কিনে দিয়েছেন। যাতে করে নিজেরা কাজ করে স্বাবলম্বী জীবন যাপন করতে পারে।
উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব মোঃ আব্দুর রশিদ মাষ্টার,আলহাজ্ব রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ,মাওলানা মোঃ ইব্রাহিম, আজিজুল প্রধান,আক্তার হোসেন,মোকলেছুর রহমান, নজরুল,মোক্তার,ওসমান গনি সহ বিভিন্ন সমাজ ভিত্তিক মসজিদের ঈমামগন।
ঈদ সামগ্রী বিতরনের সময় "রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশন" এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন বলেন, সেই ছোট্ট বেলা থেকেই আমার লক্ষ্য ও উদ্দেশো ছিল যদি কখনো আল্লাহপাক আমাকে দান করার ক্ষমতা দেন তাহলে চুপি চুপি মানুষের ঘরে গিয়ে দান করে যাব। তাই মহান আল্লাহপাক আমার সেই আশা পূরন করেছে। আমার পাঁচ ছেলে দুই মেয়ে। বড় ছেলে ইংল্যান্ড থাকে। দ্বিতীয় ছেলে আকবর মোঃ শওকত কলেজের প্রভাষক,দুই ছেলে জাপান,দুই মেয়ে জার্মান। মূলত আমি আমার পরিবারের সদস্যগন রেমিট্যান্স যোদ্ধা। তাই অনেকেই মৃত্যুর পরে তার ওয়ারিশান পিতা-মাতার নামে ফাউন্ডেশন করে। আর আমি সকলের দোয়ায় জীবিত থাকাকালীন রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে জনকল্যানে সেবা করতে চাই। তারই ধারাবাহিকতায় আমার এলাকার যেসব মসজিদ মাদ্রাসা এতিমখানা আছে সেইসব প্রতিষ্ঠানকে নিয়মিত সাহায্যে সহযোগীতা করে আসছি। এমনকি সোনারগাঁ পেরাব এলাকা ও বারদীতে মসজিদ মাদ্রাসা স্থাপন করে দিয়েছি। দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে দেশবাসী তেমন ভালো নেই। মানুষের আয় রোজগারের পথটুকুও বন্দ। তাই আমার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা আপনাদের জন্য ঈদ সামগ্রী উপহার। আপনাদের নিকট আমার অনুরোধ পরিবার নিয়ে ঘরে থাকুন,সুস্থ থাকুন। সেই সাথে দোয়া করি সকলে ভালো থাকুন।
পাশাপাশি রৌশন আনোয়ার ফাউন্ডেশনের পরিচালক পুত্র আকবর মোঃ শওকত বলেন, আমরা পাঁচ ভাই ও দুই বোন উক্ত ফাউন্ডেশনের কার্যনির্বাহী সদস্য। আমার পিতা যেভাবে আপনাদের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছেন ভবিষ্যতেও আমরা ভাই বোন মিলেমিশে আপনাদের সেবা দিয়ে যাব।শুধু আমার পিতা-মাতা ও পরিবারের সকল সদস্যদের প্রতি দোয়া চাই। যেন পরিবারের সকলকে মহান আল্লাহপাক সুস্থ্য রাখেন।



জুম্মাতুল বিদা উপলক্ষ্যে সাংবাদিক অনিকের উদ্যোগে গ্রামবাসীর মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

নিউজ ডেস্ক :ঈদ মানে আনন্দ ঈদ মানে খুশি। ঈদের খুশি ভাগাভাগি করে নেয়ার মাঝেই প্রকৃত আনন্দ নিহীত রয়েছে। সারা পৃথিবীতে এখন করোনা ভাইরাসের কারণে মানুষ বিপদগ্রস্ত হয়ে পরেছে। এবারের ঈদ উদযাপন সত্যি অনেকটা কষ্টসাধ্য এবং সাবধানতার বিষয়।

শুক্রবার (২২ মে) সকাল ৯টায় ঈদের আনন্দ সকলের মাঝে ভাগাভাগি করে নেয়ার জন্য দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন পত্রিকার নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি এবং বিজয় টেলিভিশনের সোনারগাঁও ও বন্দর উপজেলা প্রতিনিধি, জনতাকন্ঠ নিউজ পোর্টালের প্রকাশক এবং সোনারগাঁও রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো.দ্বীন ইসলাম অনিকের নিজস্ব অর্থায়নে তার এলাকা সোনারগাঁও উপজেলার সাদিপুরের শতাধিক গ্রামবাসীর মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন করেছেন।

এসময় সাংবাদিক অনিক বলেন,করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার প্রথম থেকেই আমি আমার সাধ্যমতো নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় অসহায় মানুষকে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করে আসছি। এই মহামারির মধ্যেই এখন পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপনের জন্য আবারও নিজ অর্থায়নে অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন করেছি। আমি সমাজের বিত্তবানদের কাছে অনুরোধ করবো আপনারা যার অবস্থান থেকে অন্তত একেকজন ৫টি পরিবারকে সহায়তা করুন। তাহলেই দেখবেন সকলেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারবে।

ত্তিনি আরো বলেন, সেই সাথে দেশবাসীর কাছে আমার অনুরোধ থাকবে আপনারা করোনা ভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক স্বাস্থ্যবিধি মেনে যার যার অবস্থানে থেকে ঈদ পালন করুন



এই ঋণ শোধ করবো কিভাবে (চেয়ারম্যান মাসুম)

নিউজ ডেস্ক : করোনা ভাইরাস এই পরিপ্রেক্ষিতে, বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ (৫) আসনের সাংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম সেলিম ওসমানের সহধর্মণী নাছরিন ওসমানের পক্ষ্য থেকে প্রেরীত চাল ও ডাল প্রায় ২ হাজার হতদরিদ্র পরিবারে মধ্যে বিতরণ করেন বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মাসুম আহম্মেদ।
প্রতিটি পরিবার কাছে ২০ কেজি চাল ও ২ কেজি ডাল হস্তান্তর করা হয়।
শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ প্রাঙ্গণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এ সকল খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
খাদ্য সামগ্রী পেয়ে অনেকেই সেলিম ওসমান ও নাছরিন ওসমানের দীর্ঘায়ু কামনা করেন।
বিতরণকালে চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ বলেন, আমরা আমাদের এমপি সেলিম ওসমান ও তার সহধর্মণী নাছরিন ওসমানের অবদান আমরা শোধ করতে পারবো না। আমি ব্যাক্তিগত ভাবে তাদের সু স্বাস্থ্য কামনা করি।

সোনারগাঁয়ে দুধঘাটা গ্রামে ইঞ্জিনিয়ার মাসুমের ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ
 
নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের দুধঘাটা গ্রামে তিনশত পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২১মে) সকালে সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের নিজস্ব অর্থায়নে এ সকল ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়। এসময় করোনা প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষগুলো ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের জন্য দোয়া ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ কালে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগের নেতা বাবুল সরদার,পিরোজপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল ভূইয়া,রাসেল ভূঁইয়া, আওয়ামীলীগ নেতা আজিজ সরকার, মহিউদ্দিন ভূইয়া,বাবুল ভূইয়া সহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির পক্ষে চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ

নিউজ ডেস্ক : সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে, নারায়নগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির পক্ষে সনমান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ অসহায় ও দুস্থ ১২ শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করেন। সোমবার বিকেলে সনমান্দি ইউনিয়ন পরিষদের পাশে মগবাজার বালুর মাঠে এ খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হয়।
খাদ্য সহায়তা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসনাত শহীদ বাদল।
বিশেষ অতিথি ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প বিষয়ক সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম, আওয়ামীলীগ নেতা জসীমউদ্দিন, জামাল হোসেন, গোলজার হোসেন, কেন্দ্রীয়ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ হোসাইনসহ আওয়ামীলীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা

বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে ধামগড় ইউনিয়নের অসহায় পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রহী বিতরন

শাহিন সাকি :করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সমগ্র নারায়ণগঞ্জ জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করায় এবং সকলে বাসায় অবস্থান করায় দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষরা কর্মহীন হয়ে আর্থিক ও খাবারের সংকটে ভুগছে বিধায় তাদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ধামগড় ইউনিয়নের সকল ওয়ার্ডের ৬শত দুঃস্থ, দিনমজুর, রিক্সাচালক, নিম্ন আয়ের ও অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
১৮ মে সোমবার দুপুর ২টায় অত্র ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ের সম্মুখ থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে এ বিতরণ কার্যক্রমে ধামগড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট আবু হাসনাত মোঃ শহিদ বাদল (ভিপি বাদল), বিশেষ অতিথি হিসেবে বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাজিম উদ্দিন প্রধান উপস্থিত থেকে অসহায়দের হাতে খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট তুলে দেন।
এ সময় ধামগড় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদ, নাসিক ২৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনু, ধামগড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ প্রত্যাশি আব্দুল আউয়াল বাচ্চু, বন্দর থানা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক মনির হোসেন মাস্টার, ধামগড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা শরীফ হোসেন, বন্দর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব নুরুজ্জামান, সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার সখিনা বেগম, সাবেক মেম্বার খাইরু উদ্দিন, সাবেক মেম্বার শাহ আলম, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আমিনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আলী নূর হোসেন মাস্টার, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ সেলিম, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মুসলিম ও সাধারণ সম্পাদক জয়নাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বন্দর কেওঢালা মোবারক ভুইয়া ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে পাঁচশত পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন

নিউজ ডেস্ক -- বিশ্বময় মহামারির অভিশপ্ত নাম কোবিড-১৯। করোনা ভাইরাস। আর এ ভাইরাসজনিত মহামারীর কারণে জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আহবানে সাড়া দিয়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশ লকডাউন আতংকে আতংকিত। কার্যত লকডাউন থাকার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া নিম্নবিত্ত ও হতদরিদ্র পাঁচ শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্যসহায়তা বিতরণ করেছেন নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার মদনপুর ইউপি সাবেক আওয়ামীলীগ সভাপতি মরহুম "মোবারক আলী ভুইয়া ফাউন্ডেশন "।
সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষদের সাহায্যের পাশাপাশি এবার সমাজের মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে সাবেক মদনপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মরহুম মোবারক আলী ভুইয়ার স্মৃতিতে " মোবারক ভুইয়া ফাউন্ডেশের পক্ষে তার পরিবারবর্গ। মূলত মোবারক ভুইয়া ফাউন্ডেশন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।
আজ১৮/৫/২০২০ইং সোমবার ২৩ই রমজান বন্দর উপজেলার মদনপুর ইউপির কেওঢালা এলাকায় মরহুম "মোবারক ভুইয়া ফাউন্ডেশন" এর কর্নধার বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সমাজ সেবক মরহুম মোবারক আলী ভুইয়ার পুত্র আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন ভুইয়া ও মদনপুর ইউপি যুবলীগ সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব জাবেদ হোসেন ভুইয়া পাঁচশত মধ্যবিত্ত ও অসহায় পরিবারের মাঝে ঈদ সামগ্রী প্যাকেট উপহারসরুপ বিতরণ করেন।
এছাড়া মদনপুর ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডের অসহায় মানুষের মধ্যে বিতরণের জন্য অসহায় দুঃস্থ্য পরিবারের বাড়ি বাড়ি উপহার সামগ্রীর প্যাকেট পৌছে দেন। ইউনিয়নের শতাধিক পরিবারে বিতরণের জন্য স্থানীয় নেতৃবৃন্দের কাছে উপহার সামগ্রী হস্তান্তর করেন। এসব উপহার সামগ্রীর প্যাকেট ছিলো চাল, পিঁয়াজ, সেমাই, চিনি আলু ইত্যাদি । ঈদ
উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব মোঃ আবুল কাসেম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার সানোয়ারা বেগম,শফিক মেম্বার,সাদেকুর রহমান সাদেক মেম্বার,সাবেক ফরিদ মেম্বার,জাহিদ ভূইয়া, জাহাঙ্গীর আলম ভুইয়া সহ আউয়াল ভুইয়া । এছাড়া বিভিন্ন ওয়ার্ডের স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
ঈদ সামগ্রী বিতরনের সময় সাবেক মদনপুর ইউপি আওয়ামীলী সভাপতি মরহুম মোবারক আলী ভুইয়ার বড় ছেলে আলহাজ জসিম উদ্দিন ভুইয়া বলেন, আমার পিতা মরহুম মোবারক আলী ভুইয়াকে আপনারা মদনপুরবাসী এখনও যেভাবে মনের মাঝে স্থান দিয়ে রেখেছেন তা অবশ্যই প্রশংসনীয়। আমার পিতার আদর্শকে লালন করে আমিও আপনাদের সন্তান হিসেবে আপনাদের পাশে সুখে দুঃখে যেকোন সময় থাকতে চাই। এবং আপনাদের সেবা করে যেতে চাই। দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে আমার বন্দরের মদনপুরবাসী তেমন ভালো নেই। অসহায় মানুষের আয় রোজগারের পথটুকুও বন্ধ। তাই আমার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা আপনাদের জন্য আমার ঈদ সামগ্রী উপহার। তাই আপনাদের নিকট আমার অনুরোধ পরিবার নিয়ে ঘরে থাকুন সুস্থ থাকুন। সেই সাথে দোয়া করি সকলে ভালো থাকুন।
পাশাপাশি তার আরেক ছেলে মদনপুর ইউপি যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব জাবেদ হোসেন ভুইয়া বলেন, আমরা আওয়ামীলীগ পরিবারের সদস্য। আমার পিতা মরহুম মোবারক আলী ভুইয়া যেভাবে আপনাদের পাশে থেকে কাজ করে গিয়েছেন আমরাও তাই করে যাব। কিন্তু কিছু কুচক্রী মহল যারা আমাদের বাপ দাদার আওয়ামিলীগ দল করা সফলতাকে ম্লান করে দিতে চায়। অথচ তাদের বাপ দাদার কোন রাজনৈতিক পরিচয় নেই। চাঁদাবাজি গুন্ডামী মাস্তানীই তাদের একমাত্র পেশা। তাই বলতে চাই রাখে আল্লাহ মারে কে? পৃথিবীর কারো সাধ্য নাই আমাদের ভালো কাজের সফলতা ধমিয়ে রাখতে। তাছাড়া গত কিছুূদিন পূর্বে চাল কেলেংকারী নিয়ে আমার বিরুদ্ধে যে গুজব ছড়িয়েছে তা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যে প্রনোদিত মিথ্যা বানোয়াট। তাই তাদের গুজবে কান না দিয়ে যতদিন পৃথিবীতে বেঁচে থাকব ততদিন অসহায় দরিদ্র মানুষের সেবা করে যাব( ইনশাআল্লাহ)।

বি এম এফ যুব কল্যান সংস্থার উদ্যোগে কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য ঈদ সামগ্রহী বিতরন  ছনিয়া আক্তার

নিউজ ডেস্ক : সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের সাহাপুর এলাকায়, বি এম এফ যুব কল্যান ও সমাজ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে, অসহায় কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রহী বিতরন করা হয়।
১৭ মে রোববার সকালে ১১ ঘটিকার সময়, প্রানঘাতি করোনা ভাইরাসে ঘরে থাকা নিম্ন আয়ের, দরিদ্র, অসহায় পরিবারের মধ্যে উদ্বোধন করে , খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইদুল ইসলাম। এবং
বি এম এফ যুব কল্যান সংস্থার, সভাপতি ছনিয়া আক্তার। অসহায় দুস্হ কর্মহীন পরিবারের মাঝে ও খাদ্য ঈদ সামগ্রহী বিতরন করেন।
ঈদ সামগ্রী বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন,
ওয়াহিদুজ্জামান, শাহাজাহান মিয়া, ইয়াছিন কবির, আবদুর রহিম, আবদুল ছালিম,ইমরান মিয়া, আলমগীর হোসেন প্লাবন,( দৈনিক আমার বার্তা),
মিলন হোসেন,কামাল হোসেন, সহ আরো অনেকেই। 



নিউজ ডেস্ক : লকডাউনে মার্কেট খোলা থাকলেও গনপরিবহন বন্ধ থাকায় একেবারেই আয়  রোজগার নেই নারায়ণগঞ্জ বন্দরে  ৫ শতাধিক ঋৃষি  মুচি পরিবারের। কর্মহীন এ ৫শ মুচি পরিবারের মানবেতর জীবন । দৈনিক  আয় রোজগারে তাদের চলে সংসার। উপজেলার পুুুুরান বন্দর   ত্রিবিনী,  জহরপুর,  শ্যামপুর ও সাবদীসহ ৪টি গ্রামে প্রায়  হাজারো মুচি পরিবারের বসবাস।  তারা গনপরিবহনে প্রতিদিন  ঢাকা রাজধানী, নারায়ণগঞ্জ শহরসহ জেলার আশপাশে এলাকা ও হাট-বাজারে জুতা মেরামত কাজ করেন। এতেই চলতো সংসার। করোনায় ঘরবন্দি এই পেশার মানুষ সরকারি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় ত্রাণ সামগ্রী পেয়ে এখন খেয়ে বেচে আছেন প্রায় ৫শতাধিক পরিবার। সনতন হিন্দু ধর্মাবলম্বিদের ধর্মীয় রীতি  মেনে চলেন তারা।
খোজ নিয়ে জানাগেছে, উপজেলার বন্দর ইউপির ত্রিবিনী খালের তীরে (পুরান বন্দর) এলাকায় ঘনবসতি ৫ শতাধিক ঋৃষি মুচি পরিবার বসবাস। এখানকার ঋৃষি পরিবারের অনেকেই বাপ-দাদার আদি মুচি  পেশা ছেড়ে   জীবিকা নির্বাহে মাসিক বেতনে  শিল্পকল কারখানাসহ অন্যান্য পেশা বেচে নিয়েছেন। মুচি পেশার পরিবারগুলোর মধ্যে চলছে দুরবস্থা।
নিখিল চন্দ্র  ঋৃষি জানান,  প্রথম  সরকারি  ত্রাণ পৌঁছে দেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। এর পর কয়েক দফা ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন এমপি সেলিম ওসমান। যারা দিন আনে দিনে খায় ওই পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে।  গনপরিবহন বন্ধ থাকায় কর্মহীন বহু পরিবার অর্থের অভাবে দৈনন্দিন নিত্যপ্রয়োজনীয় তরিতরকারি,  একটি  ট্যাবলেট কেনার সামথ্য নেই।
শ্যামপুর গ্রামের গীতা রানী দাস জানান, ৫ জনের সংসার চলে ৩ জনের কাজে।  লকডাউনে ৩ জনেই ঘরবন্ধি। শ্যামগ্রামে প্রায় ১শ জন কর্মহীন। ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ  ত্রাণ না পৌঁছালে  ঘরে  রান্না হইতো না। ত্রাণে চাল, ডাল তেল, আলু ও লবন পেয়ে থাকলেও তরিতরকারি কেনার টাকা নেই। আলুর ভর্তা আর  ডাল দিয়ে ভাত খেয়ে বেচে আছি।
 জহরপুর গ্রামের বাসিন্দা সতেন চন্দ্র দাস জানান, এ গ্রামে দেড় শ পরিবারের বসবাস। কর্মহীন হতদরিদ্র ৩০টি পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দিচ্ছেন মুচাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন। ত্রাণেই বেছে আছে তারা।
সাবদী গ্রামের সুবাস চন্দ্র ও  অমল চন্দ্র  জানান, নারায়ণগঞ্জ কালিবাজার জুতা মেরাতমের কাজ করি। লকডাউনে ঘরবন্ধি। খেয়ে না খেয়ে দিন কাটছে আমাদের। ঈদের আগে কাজের চাপ বেশী। জীবন বাচাতে কাজে গিয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ বসতে দেয় না। লাঠি পেটা করে।  ত্রাণ সহায়তা না পেলে না খেয়ে মরতে হবে।   
বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শুল্কা সরকার জানান, মুচি পরিবারগুলো আলাদা ভাবে সহায়তা করার     সুযোগ নেই।  কারণ সকল শ্রেণীর পেশার  কর্মহীন পরিবারের মাঝে সরকারি ভাবে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।   স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সমাজের ভিত্তশালীরাও সহায়তা করছে ।  ইতি মধ্যে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম মহোদয়ের নিজস্ব তহবিল থেকে আর্থিক সহায়তাসহ খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে  দিচ্ছেন । করোনা মহামারিতে বন্দর উপজেলার কোনো পরিবার না খেয়ে  থাকবে না। করোনা মোকাবেলায় উপজেলাবাসীর সঙ্গে আছি এবং থাকবো।  

 সোনারগাঁয়ের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের পাশে মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদ”


নিউজ ডেস্ক : বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসজনিত কারনে  লকডাউনে থাকা বিপর্যস্ত সোনারগাঁওয়ের শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে ঈদ উপহার দিয়েছেন “মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদ’র কর্ণধার  এরফান হোসেন দীপ।
বুধবার(১৩ই মে) সকালে উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সোহেল রানা ও ওসমানগনীর কাছে  ১০০ টি মুক্তিযোদ্ধা পরিবাররের জন্য প্যাকেটজাত ১০ কেজি চাল, ৩ কেজি আলু, ১ কেজি পেয়াজ, ১ কেজি চিনি,১ কেজি ডাল, ২ প্যাকেট সেমাই, ১ লিটার তেল এবং ১৩ জন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারকে পাঞ্জাবীসহ বিভিন্ন ঈদ সামগ্রী উপহার তুলে দেন সাবেক সাংসদ মরহুম মোবারক হোসেনের স্বরণে তৈরি কল্যাণ ট্রাষ্ট”মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদ “।
মুক্তিযোদ্ধাদের ঈদ উপহার দেওয়ার বিষয়ে মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদের কর্ণধার দীপ  বলেন, ‘দেশের জন্য তারা যা করেছেন সেটার দায়বদ্ধতা থেকেই তাদের জন্য আমাদের এই উপহার। অনেকেই খুব কষ্টে আছেন। তাই আমরা তাদের পাশে দাঁড়ানোর কথা ভেবেছি। এ ছাড়া মানুষকে সাহায্য করার এটাই সেরা সময়।’
মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ওসমানগনী বলেন, সাবেক সাংসদ  মোবারক হোসেন ছিলো কর্মীবান্ধব ২ বারের সফল রাজনীতিবিধ, তিনিও জীবদ্দশায়  সোনারগাঁওয়ের মুকিযোদ্ধাদের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেগেছেন। আজ তার সুযোগ্য সন্তান দীপ আমাদের পাশে যেভাবে এসে দাড়ালেন সত্যি আজ আমরা তার মাঝে তার বাবার প্রতিচ্ছবি দেখতে পারছি। আল্লাহ তাকে নেক হায়াত দান করে সোনারগাঁওবাসীর সেবা করার তৌফিক দান করুক।
এসময় উপস্থিত ছিলেন,  মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমান্ড আলেয়া আক্তার, রাবেয়া সুলতানা উর্মী,আমিনুল ইসলাম, বেলায়েত হোসেন,বিল্লাল হোসেনসহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।
বিতরণ কাজের সার্বিক তত্তাবধানে ছিলেন মোবারক হোসেন স্মৃতি সংসদের নেতা  আনিসুর রহমান রবিন,  সদস্য মিঠু আহমেদ,সাইফুল ইসলাম সিফাত, বকুল হোসেন ,রাসেল, নাহিদুল ইসলাম খোকন, দুলাল, সোহরাবসহ সেচ্ছাসেবীকর্মীবৃন্দ

নাসিক ২৭নং ওয়ার্ড উন্নয়ন ব্যহত করতে মহিলা কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচারনার অভিযোগ।

নিউজ ডেস্ক : - নারায়ণগঞ্জ সিটি
কর্পোরেশন(নাসিক)২৫,২৬,২৭নং ওয়ার্ডের উন্নয়নের ধারাকে ব্যহত করতে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করে বেড়াচ্ছে স্থানীয় কিছু স্বার্থান্নেষী মহল। স্থানীয় মহিলা কাউন্সিলর হোসনেয়ারা বেগম জানায় গত নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ২৫,২৬ ও ২৭ নং ওয়ার্ড থেকে বিপুল ভোটে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হন। নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করতে থাকে। নগর মাতা মেয়র আইভি ও স্থানীয় সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এ কে এম সেলিম ওসমানের সার্বিক তত্বাবধানে এলাকার স্কুল,মসজিদ,মাদ্রাসা থেকে শুরু করে রাস্তা ঘাট কালভার্ট ও ব্রীজ উন্নয়ন করতে থাকেন। সেই সাথে বাল্য বিবাহ, ইপটিজিং,মাদকের বিরুদ্ধে দূর্বার আন্দোলনের বিরুদ্ধে অগ্রনী ভূমিকা পালন করেন। একসময় যেখানে এলাকায় মাদক বিস্তার লাভ করেছিল সেখানে প্রশাসনের সহযোগীতায় তা নির্মূল করতে সক্ষম হন। পাশাপাশি সমাজে বঞ্চিত নারী অধিকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় ২৭নং ওয়ার্ড কুড়িপাড়া বাজার মাকসুদ চেয়ারম্যানের বাড়ি হইতে চাপাতলী ব্রীজ হয়ে হরিপুর যাবার রাস্তাটি পয়ঃনিস্কাশন ড্রেনেজ ও আর সিসি ঢালাই সহ পাকা রাস্তা নির্মান করেন। যেখানে অত্র রাস্তা দিয়ে জনগন চলাচল করতে পারতনা। সামান্য বৃষ্টি হলেই হাটু পর্যন্ত পানি জমে কাদায় পরিপূর্ন হয়ে থাকত। সেখানে জনসাধারণের সুবিধার্থে তিন জায়গায়ই নিজেস্ব জমির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মান করেন কাউন্সিলর হোসনেয়ারা বেগম। রাস্তাটির ত্রি-সিমানার পাশে গভীর নলকূপ বসিয়ে সুপেয় পানির ব্যবস্থাও করেন। অথচ এখানে এক সময় পুকুর আর টয়লেট ব্যতীত আর কিছুই চোখে পড়তো না। রাস্তা নির্মানের পর এলাকায় নতুন নতুন বাড়ি ঘর আর দোকানপাট নির্মিত হয়। এলাকার জনগন অনায়াসে সেই রাস্তা দিয়ে বাজার নিয়ে গাড়িতে করে গন্তব্যে স্থানে পৌছতে পারে। সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হোসনেয়ারা বেগমের উন্নয়নের জোয়ারে কিছু সংখ্যক হিংসুটে কুচক্রী মহল তার বিরুদ্ধে উঠে পরে লেগেছে। তার উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে একের পর এক তার বিরুদ্ধে মিথ্যা দুর্নাম সহ বিভিন্ন ঘটনা রটনা ঘটানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। এমনকি তাকে প্রকাশ্য হুমকি ধামকিও দিয়ে যাচ্ছে। যেখানে কাউন্সিল হোসনেয়ারা বেগম জনগনের রাস্তার পাশে গভীর নলকূপ বসিয়েছেন। যেখানে পূর্ব থেকেই টয়লেট ছাড়া কোন রাস্তাই ছিলনা। সেখানে একশ্রেনীর স্বার্থান্নষী মহল নিজেদের ব্যাক্তিগত স্বার্থ উদ্ধারে রাস্তা দখলের নামে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছে। এমনকি স্থানীয় সংবাদ কর্মীদের দিয়ে ভূল বুঝিয়ে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রচার করতে মরিয়া হয়ে পরছে। তিনি আরো জানান এলাকার মৃত চান মিয়ার ছেলে ইমরান ও শফিক তাকে প্রকাশ্য আক্রমণ করার হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। তাদের উদ্দেশ্যে হলো নলকূপ বসানো খালি জায়গা আর টয়লেটের জায়গাটুকু দখল করে নেয়া। আর তাদের পিছনে ইন্দন যোগান দিচ্ছে একশ্রনীর ভূমি দস্যু আর স্বার্থান্নেষী মহল। তিনি এসকল দূনীতিবাজ লোকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করেন। সেই সাথে যারা কাউন্সিলর হোসনেয়ারা বেগমের বিরুদ্ধে এসকল মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন তাদেরকে আইনের আওতায় নিতে প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

নিজস্ব অর্থায়ণে চেয়ারম্যান মাসুমের শেষ ধাপের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

নিউজ ডেস্ক : সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে নারায়নগঞ্জে বন্দরে ধামগড় ইউনিয়ন, আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদ চেয়ারম্যানের নিজস্ব অর্থায়ণে ৩৫০০ অসহায় দুস্থ পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। ১২ ই মে মঙ্গলবার দুপুরে ১১ ঘটিকায় সময় ৬ নংওয়ার্ডে গোকুলদাসেরবাগ জামেয়া ইসলামিয়া আলীম মাদ্রাসা  প্রাঙ্গনে প্রানঘাতি করোনা ভাইরাসে ঘরে থাকা নিম্ন আয়ের, দরিদ্র, অসহায় পরিবারের মাঝে শেষ ধাপে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেয়া হয়। খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কালে। এ সময় শুক্লা সরকার চেয়ারম্যান মাসুমের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, আমাদের চেয়ারম্যানরা এই সময়ে আপনাদের পাশে দাড়িয়েছে।
আপনাদের খাদ্য সামগ্রী দিয়ে সহযোগীতা করছে।
চেয়ারম্যানদের জন্য আপনারা দোয়া করবেন।
এদিকে খাদ্য পণ্য বিতরণকালে ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ মাসুম আহম্মেদ বলেন, সরকারি ত্রান বিতরণের পাশা -পাশি আমি এই পর্যন্ত নিজ তহবিল থেকে সাড়ে তিন হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি।
তার পরও যদি কেউ খাদ্য সংকটে থাকেন আমাকে জানাবেন।
আমি চেষ্টা করবো আপনাদের বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিতে। ,
এসময় উপস্থিত ছিলেন,বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শুল্কা সরকার, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিমউদ্দিন, আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদ চেয়ারম্যান ধামগড় ইউনিয়ন, নাসিক সাবেক কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনু, আওয়ামীলীগ নেতা আলমাছ ভূঁইয়া, প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা সোনা মিয়া প্রমূখ,মোঃ গোলজার হোসেন, সহ অনন্য নেতাকর্মী বৃন্দ। 

 নিউজ ডেস্ক : করোনা ভাইরাস থেকে নিজে বাঁচুন অপরকে বাঁচান এবং সকলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন।
সোনারগাঁও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ  সন্তান কমান্ড’র  সভাপতি ছনিয়া  আক্তার নিজস্ব অর্থায়নে   মুক্তিযুদ্ধের মাঝে রমজানের উপহার হিসাবে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেন।
খাদ্য সামগ্রী মধ্যে রহেছে চাল ডাল আলু তেল লবন চিনি সেমাই
সোমবার ( ১১ মে)  সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত  উপজেলায়  ৫ টি ইউনিয়নে এ উপহার বিতরণ করা হয়েছে।
ছনিয়া আক্তার গণমাধ্যমকে জানান আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা,  আমি মুক্তিযোদ্ধা’র সন্তান। এ দুঃসময়ে    আমার বাবার বয়সী মুক্তিযোদ্ধা খোঁজ খবর নেই। আমি   তাদেরকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে   আমার সাধ্য অনযায়ী   কিছু উপহার হিসাবে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেই ।
এসময় উপস্তিত ছিলেনন, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হালিম মাষ্টার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম রিফাত, কাঁচপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড এর সহ সভাপতি মাসুদ আহমেদ, বারদি ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড এর সভাপতি ইকবাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুম মৃধা সহ আরো অনেকে।

দেশবার্তা নিউজ :  সোনারগাঁ উপজেলায় মানিক মিয়া নামের এক ইউপি সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। তিনি মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানান, উপজেলার মোগরাপাড়া ইউপি সদস্য কতদিন ধরে জ্বর কাশি নিয়ে স্বাস কষ্টে ভুগছিলেন। সেজন্য তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে তার করোনা নমুনা পরিক্ষার জন্য দিয়ে যান। আজ সকালে তার নমুনা পরিক্ষার রির্পোটে তার করোনা সনাক্ত হয়। বর্তমানে তিনি রাজধানীর করোনা হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার চেষ্টা করছেন।

এদিকে তার পরিবারের পক্ষ থেকে তার শারীরিক সুস্থতার জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।

সোনারগাঁয়ে মোগরাপাড়ার গোহাট্রায় ইঞ্জিনিয়ার মাসুমের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ


দেশ বার্তা নিউজ : করোনা ভাইরাস থেকে নিজে বাঁচুন অপরকে বাঁচান এবং সকলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। সোনারগাঁ উপজেলাধীন মোগরাপাড়া ইউনিয়নের গোহাট্রা গ্রামে উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের নিজস্ব অর্থায়নে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।
করোনা প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া গোহাট্টা ও ইউসুফগঞ্জ গ্রামের অসহায় ১৫০ টি পরিবারের মাঝে শুক্রবার বিকেলে খাদ্যসামগ্রী ও পবিত্র মাহে রমজানের এ উপহার বিতরণ করা হয়।
ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম বলেন, আমি সাধ্যমতো চেষ্টা করছি উপজেলার প্রতিটি এলাকায় অসহায়দের মাঝে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিতে। যাদের আল্লাহ তৌফিক দিয়েছেন তারা সবাই মিলে এ বৈশ্বিক পরিবেশে অসহায়দের পাশে থেকে করোনা প্রতিরোধের আহবান জানান তিনি।
খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, সোনারগাঁও প্রেসক্লাবের সাংবাদিক শাহাদাত হোসেন রতন, মাসুম মাহমুদ, হারুন অর রশিদ, মাজহারুল ইসলাম, শামসুল আলম তুহিন ও আনোয়ার হোসেন।অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম সিরাজ, মাসুদ রানা, শওকত ওসমান সরকার রিপন, শাহিন সাকি ও সিফাত। এছাড়াও স্থানীয়দের মধ্যে শরিফুজ্জামান শিপু, আজমাইন সিয়াম, শিল্পি আক্তার, সুমি আক্তার, রনি, তাবারক ও মেহেদি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



অসহায় দুস্থ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিলেন ব্যবসায়ী মনির হোসেন

নিউজ ডেস্ক : সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়া নভেল-১৯ করোনা ভাইরাসে এই সময়টাতে দেখা মিলছে মানবিক কিছু মানুষেরও। বিশেষ করে দেশের প্রায় লকডাউন পরিস্থিতিতে দিনমজুর, খেটে-খাওয়া, নিম্ন-আয়ের, অসহায়, সাধারণ মানুষ “ করোনায় ঘরে থাকি এবং গরীবকে সাহায্য করি” এই স্লোগানকে সামনে রেখে সোনারগাঁ উপজেলার শাখার সম্মানিত সহ-সভাপতি, মো: মনির হোসন এর নিজস্ব অর্থায়নে আজকে কয়েক জন অসহায় গরীবকে খাদ্য সামগ্রী এবং নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।
বৃহস্পতিবার ৭ই, মে ২০২০ ইং তারিখ দুপুর ২ ঘটিকার সময় শোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ী মজলিস এলাকায় এবং দুপুর ২:৩০ মিনিটের সময় শোনারগাঁও পৌরসভার পুরান ত্রিপরদী এলাকায় ত্রান সামগ্রী এবং আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি সোনারগাঁ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট মো: ফিরোজ মিয়া। আরো উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি সোনারগাঁ উপজেলা শাখার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মো: রফিকুল ইসলাম (রফিক), বাড়ী মজলিস গ্রামের বিশিষ্ট সমাজ সেবক জনাব মো: কামাল হোসেন ও মো: মুজাম্মেল হোসেন প্রমুখ, পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটির সদস্য শাহিন সাকি,

এ বিষয়ে পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি সোনারগাঁ উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি মো: মনির হোসেন বলেন আমি একজন ক্ষুদ্র ইসেকট্রিনক্স ব্যবসায়ী। সোনারগাঁ চৌরাস্তায় হাজ্বী জালাল টাওয়ারে ন্যাশনাল ইলেকট্রনিক্স নামে আমার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আছে। তিনি আরো বলেন সমাজে সবসময় ভালো কাজ করার জন্য আমি এগিয়ে যাই। করোনা ভাইরাস কালীন সময়ে আমার কাছে কিছু লোক স্বশরীরে এবং মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে তাদের দু:খের কথা বলে। তাদের কষ্টের কথা শুনে আমার দু’চোখ দিনে অশ্রু ঝড়ে। নিজের কাছে খুব খারাপ লাগে তার পর আমি একজন অতি সামান্য ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী।
আমার সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি গরীব ও অসহায় মানুষকে খাদ্য সামগ্রী এবং আর্থিক সহযোগীতা দিয়ে এগিয়ে এসেছি। মোট কত টাকা ও কি দিয়েছেন জানতে চাইলে বলেন কয়েক জন কে ২৫ কেজির এক বস্তা চাউল, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি সেমাই এবং নগদ আর্থিক সহায়তা করেছি সাধ্যমত দিয়েছি যা দিয়ে তারা তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারে।


দুনিয়াতে যাদের কেউ নেই তাদের পাশে এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা

নিউজ ডেস্ক : দুনিয়ার সবচেয়ে অসহায় এতিম বাচ্চা গুলো করোনা পরিস্থিতিতে খুঁজে পায়নি যাওয়ার আশ্রয়স্থল। তাদের অসহাত্বে দুঃখ কিছুটা কমাতে তাদের পাশে দাঁড়ালেন সোনারগাঁয়ের মাটি ও মানুষের নেতা নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা।

বুধবার (৬ মে) দুপুরে উপজেলা পিরোজপুর ইউনিয়নের মোজাফফর আলী ফাউন্ডেশনের এতিমখানার একঝাঁক এতিমের দায়িত্ব নেন এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা। এসময় তিনি পিরোজপুর ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলমগীর কবিরের মধ্যমে এতিমখানার প্রধান শিক্ষকের কাছে মাহে রমযান মাস উপযোগী খাবার সামগ্রী পৌঁছে দেন।

এতিমখানার শিক্ষক মাওলানা আনোয়ার হোসেন জানান, দীর্ঘদিন যাবত আমাদের এই এতিমখানায় সমাজের বিত্তবানদের সহায়তা ও ফাউন্ডেশনের নিজস্ব অর্থে চললেও বর্তমান পরিস্থিতিতে আমরা এতিম বাচ্চাগুলোকে নিয়ে অসহায় অবস্থায় জীবন যাপন করে আসছিলাম। আজ এমপি খোকা সাহেবের সুদৃষ্টি পরাতে আমরা খুবই খুশি। আল্লাহ উনাকে নেক হায়াত দান করুক। এতিমখানায় মোট ১৭জন এতিম বাচ্চা রয়েছে। এদের কারো বাবা নেই আবার কারো নেই জন্মদায়িনী মা। এদের মাঝে পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের পরামর্শে সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকার উদ্যোগে উপহার সামগ্রী পৌঁছে দিতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন বলে জানিয়েছেন পিরোজপুর ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলমগীর কবির।
তিনি আরো জানান, সোনারগাঁওয়ের অভিভাবক জননেতা লিয়াকত হোসেন খোকা এই এতিম শিশুদের সার্বিক সহযোগিতা করে তাদের দায়িত্ব নিবেন। এদের স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে যা যা প্রয়োজন তা সাধ্যমত দেখা হবে।


টাকার অভাবে সন্তান বিক্রি করতে চাওয়া মা- সন্তানের দায়িত্ব নিলেন ইঞ্জিনিয়ার মাসুম

নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে করোনার প্রাদুর্ভাবে টাকার অভাবে সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশু বিক্রি করতে চাওয়ায় সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক, পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম ওই শিশু সন্তানসহ অন্য তিন সন্তানদের দায়িত্ব নিলেন।
মঙ্গলবার (৫ মে) পিরোজপুর ইউনিয়নের আষাঢ়িয়ার চর গ্রামের ভাড়াটিয়া বাবুর্চি সাইফুল ইসলামের স্ত্রী সদ্য ভূমিষ্ট শিশুর মা মনি বেগম।
সিলেটের শাহপরান থানার কল্য গ্রামের বাসিন্দা স্ত্রী মনি (২৭) বেগমকে পিরোজপুর ইউনিয়নের আষারিয়ারচর গ্রামে ভাড়াটিয়া বাসায় গর্ভবতী অবস্থায় রেখে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায় স্বামী সাইফুল ইসলাম (৩২)। সোমবার সোনারগাঁও রিপোর্টাস ক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক কামরুজ্জামান রানা ও সাংগঠনিক সম্পাদক নুর নবী জনি ও সেচ্ছাসেবী জুয়েলসহ মনি বেগমকে সিএনজি করে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তার একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। পরে টাকার অভাবে ওই কন্যা শিশুকে বিক্রি করে দেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। এ বিষয়টি সাংবাদিকরা ইউএনও কে জানালে তার নজরে আসে।
সেদিনই বিকেল ৫ ঘটিকায় সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.সাইদুল ইসলাম ওই মা ও শিশুকে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ত্রাণ সামগ্রী ও নগদ আর্থিক অনুদান প্রদান করেন।
এদিকে আজ সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম সোনারগাঁও রিপোর্টাস ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক নুর নবী জনির কাছে ঘটনার বিস্তারিত শুনে তিনি তাৎক্ষণিক অসহায় পরিবারের দায়িত্ব নিয়ে ওই মা ও শিশুকে পিরোজপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য মো: আলমগীর কবির ও সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফ আহম্মেদ ও সাংবাদিক নুর নবী জনি, সাংবাদিক রানার মাধ্যমে ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেন।
এসময় ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম সাংবাদিকদের বলেন,টাকার অভাবে একজন মা তার সন্তানকে বিক্রি করে দেবেন কোন ভাবে মেনে নেওয়া যায় না। এটা একটি মর্মস্পর্শী ঘটনা। শুধু প্রাদুর্ভাবেই নয়। সারাজীবন আমি ওই অসহায় পরিবারের পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।

বেঁদে পল্লীতে ইউএনও সাঈদুল ইসলাম এর ভালোবাসার ছোঁয়া


নিউজ ডেস্ক : আজ সন্ধ্যায় কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবী নিয়ে কাঁচপুরের চেংগাইনে এক বেঁদে পল্লীতে হঠাৎ হাজির হয় সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইদুল ইসলাম।
সেখানে পৌঁছে তিনি বেদে পল্লীর সরদারকে ডেকে কথা বলেন এবং পুরো বেদে পল্লী ঘুরে বেদে’দের জীবন আচরণ সম্পর্কে ধারণা নেন। বেদেদের শিশুদের পড়ালেখা ও চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা সম্পর্কে জানতে চান।
সাপুড়ে বেদেগন ইউএনওকে পেয়ে উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেন। তিনি সেখানে বেশ কিছুখন সময় অতিবাহিত করেন এবং ২৫ টি পরিবারের জন্য খাদ্য সহায়তা,সাবান,মাস্ক ইত্যাদি প্রদান করেন।
বেদে সরদার দ্বীন ইসলাম জানান “সাহেব আমাদের খবর নিয়েছেন, খাবার দিয়েছেন আমরা খুব খুশি”
উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন অনগ্রসর এইসব গোষ্ঠীর সহায়তা প্রদান ও জীবনমান উন্নয়নে সরকার বদ্ধ পরিকর।

ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে কঠোর অবস্থানে কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ

নিউজ ডেস্ক : সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে মহাসড়কে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার পুলিশ সদস্যরা । ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের প্রধান অংশে কঠোর অবস্থানে রয়েছে। এ সময় যানচলাচল নিয়ন্ত্রণসহ অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া মানুষদেরও ঘরে ফেরাতে মাইকিং করে পুলিশ। সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটিতে এমনিতেই সবসময় যানবাহনের চাপ থাকে। সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বব্যাপী করোনার প্রভাব বাড়ায় সরকার করোনার বিস্তার রোধে নানামুখী পদক্ষেপ নেয়। এরই অংশ হিসেবে যাত্রীবাহী যানচলাচল বন্ধ করে দেয়। তবে পণ্যবাহী যানচলাচল স্বাভাবিক রাখার ঘোষণা দেয়। এদিকে যাত্রীবাহী যানচলাচল বন্ধ হলেও মানুষ নিত্য প্রয়োজনে ঘর থেকে নির্দিষ্ট গস্তব্যে পৌঁছাতে পণ্যবাহী গাড়িতে যাতায়াত করা শুরকরলে সরকার পণ্যবাহী ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, লরি, কন্টেইনার বা পিকআপে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। সরকারি দায়িত্ব পালনে কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ সদস্যরা,ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টের গুরত্বপূর্ণ স্থানে নিয়মিত টহল দেওয়া শুরুকরে। কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ সদস্যরা যাত্রীবাহী যানচলাচল বন্ধসহ পণ্যবাহী যানচলাচল স্বাভাবিক এবং পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহনে কঠোর অবস্থান গ্রহন করে। পুলিশ সদস্যরা মাইকযোগে অপ্রয়োজনে বাড়ি থেকে বের হওয়া লোকজনদের ঘরে অবস্থানের আহ্বান জানায়। কাঁচপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো.মোজাফ্ফর বলেন, সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, ও ব্যাক্তিগত যানবাহনে যাত্রীবহন ঠেকাতে বিভিন্ন পয়েন্টে কঠোর অবস্থানে আমাদের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছে। দেশের যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত। করোনা ভাইরাসে আতংকিত না হয়ে সবাই কে সতর্কতা ও সচেতন হওয়ার আহ্বান করি , আসুন আমরা সচেতন হই করোনা ভাইরাসে আতংকিত না হয়ে, নিজে নিরাপদ থাকি অন্যকে নিরাপদ রাখি, 

পাঁচানী এলাকার ২’শতাধিক পরিবারে খাদ্য সহায়তা দিলেন ইঞ্জিনিয়ার মাসুম

নিউজ ডেস্ক : করোনা এই মহামারীতে কর্মহীন ও ঘরবন্দি মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রেখেছেন, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম কর্মহীন ও ঘরবন্দি মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রেখেছেন। আজ ১লা মে শুক্রবার সকালে পাঁচানী এলাকার ২ শতাধিক গরীব অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য উপহার বিতরণ করেন।
ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের পক্ষে পিরোজপুর ইউনিয়ণ পরিষদের ২নং ওয়ার্ড সদস্য ও পিরোজপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর আলম খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।
পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পিরোজপুর ইউনিয়ণ পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের পক্ষে এপর্যন্ত আমার ওর্য়াডে কয়েক দফা ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget