September 2021

 




নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হাজী শাহ মোঃ সোহাগ রনি নৌকা প্রতিকের পক্ষে ভোট চেয়ে শত শত নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে গণসংযোগ করেছেন। 

বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের কালিগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আলোচনা সভা শেষে কালিগঞ্জ,ইলিআরদী,মাঝেরচর,নোয়াগাঁও সহ কয়েকটি এলাকায় এ গণসংযোগ করেছেন।

গণসংযোগ কালে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সোহাগ রনি বলেন, বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার উন্নয়নের সরকার।মোগরাপাড়া ইউনিয়নবাসীদের দোয়া, সমর্থন এবং নৌকা প্রতীকে মনোনীত হলে মোগরাপাড়া ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে গড়ে তুলবো।জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে নৌকা প্রতীক দেন আমি আপনাদের নিয়ে আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আমার প্রধানমন্ত্রীকে নৌকা উপহার দিবো। আমি নির্বাচিত হলে মোগরাপাড়া ইউনিয়ন থেকে মাদক নির্মূল করবো। তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে অব্যাহত রাখতে সবাইকে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।


এসময় উপস্থিত ছিলেন,মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম,এডভোকেট শাহাদাত, ডা: তাওলাদ মাস্টার, ডা: সুমন, জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল আহম্মেদ,জেলা ছাত্রলীগের আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক নাজমুল, আওয়ামীলীগের প্রবীণ নেতা মোঃ মানিক, মেম্বার পদপ্রার্থী সজল, মোজাম্মেল আহম্মেদ,রিয়াদ হোসেন,মোঃ মিঠু সহ আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ সহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।




নিউজ ডেস্ক ঃ আগামী আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাধারণ মানুষের সমর্থন ও দোয়া প্রার্থনা করেছেন মদনপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী মামুনূর রশিদ

নিজের প্রার্থিতা জানান দিয়ে তিনি মদনপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের সমর্থন ও দোয়া প্রার্থনা করছেন।


আসন্ন ইউপি নির্বাচনে বন্দর উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড মেম্বার পদে সম্ভাব্য প্রার্থী মামুনূর রশিদ জানান, তিনি আগামী আসন্ন ইউপি নির্বাচনে জয়যুক্ত হয়ে এলাকার অবহেলিত মানুষের সেবা করতে চান। ইউপি নির্বাচনে মেম্বার প্রার্থী হিসেবে নিজের অবস্থান আরো সুসংহত করতে প্রতিনিয়ত মদনপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের প্রতিটি গ্রামের মোড়ে, চায়ের দোকান, বিভিন্ন রাস্তাঘাট,পাড়া মহল্লায় ও সাধারণ মানুষের ঘরে ঘরে ছুটে যাচ্ছেন ও দিনরাত ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করছেন।

এরই মধ্যে তিনি এলাকার সকলের সাথে কুশল বিনিময় ও নানান সমস্যা নিয়ে তরুনদের সাথে মতবিনিময় করছেন। 

ই‌তিম‌ধ্যে তি‌নি গ্রাম‌কে ঢে‌লে সাজা‌নোর পরিকল্পনাও  ক‌রেছেন গ্রা‌মের মুর‌ব্বি, শিক্ষিত ও তরুণ সমাজ‌দের সমন্ব‌য়ে।

একান্ত সাক্ষা‌তে তি‌নি জানান মদনপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড কে ঢেলে সাজানোর লক্ষ্যকে সামনে নিয়ে  একটি শোষনমুক্ত, দারিদ্র মুক্ত, শিক্ষাবান্ধব এবং বৈষম্যহীন আদর্শ গ্রাম হিসাবে গড়ে তুলার নিমিত্তে আমি আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বার পদে প্রার্থী হ‌চ্ছি। এর জন্য আমি আমার গ্রামের মুরব্বী, ভাই,বোন,বন্ধু,চাচী খালাসহ সর্বসাধারণের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি।


 




নিউজ ডেস্ক : নারায়নগঞ্জ বন্দর উপজেলা মদনপুর ইউনিয়ন পশ্চিম কেওঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু কন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে, মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।


২৯ শে সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বিকাল ৫ ঘটিকায় মদনপুর ইউনিয়নের পশ্চিম কেওঢালা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। 

 উক্ত অনুষ্ঠানে মদনপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গাজ্বী এম এ সালাম এর সভাপতিত্বে 

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আব্দুল হাই। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আলিনুর, বন্দর উপজেলা কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবুল কাসেম, মদনপুর ইউপি আওয়ামীলীগ সভাপতি মুহিদ ভুইয়া, সাধারন সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, মদনপুর ইউনিয়ন বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ আক্তার হোসেন,  হাজী জসীমউদ্দিন জসীম, মুছাপুর ইউপি ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল,বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম পলাশ,৮ নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থী মামুনুর রশিদ।


দোয়া ও মিলাদ শেষে কেকে কেটে শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন পালন করা হয়। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, মোক্তার হোসেন, গাজী রাসেল,, আবুল হোসেন আবুলসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

 




নিউজ ডেস্ক :নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা খোকনের উদ্যোগে হাফিজিয়া মাদ্রাসায় কোরআন খতম, মিলাদ মাহফিল, আলােচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়৷


মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সনমান্দি ইউনিয়নে সোনারগাঁয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের  চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জহিরুল ইসলাম খোকন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও সফলতা কামনা করে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম  জন্মদিন পালন করেন ৷


এ সময়  জহিরুল ইসলাম খোকন  বলেন ,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও সফলতা কামনা করি৷

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রতিটি সেক্টরে উন্নয়ন হচ্ছে। বাংলাদেশ অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে আমাদের বাঙালি জাতিকে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে তিনি সার্বক্ষণিক মানুষের কল্যাণে কাজ করছেন।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে। তাঁর নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড আরো গতিশীল হবে। বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার পরিস্থিতি আরো উন্নত হবে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ থেকে চিরতরে বিতাড়িত হবে ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও দুর্নীতি।



উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা,সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের  চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জহিরুল ইসলাম খোকন,  সনমান্দী ইউনিয়নের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা ও প্রমুখ৷




নিউজ ডেস্ক :  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর এর সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপির ৭৫ তম শুভ জন্মদিন উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এতিম শিশুদের সাথে উদযাপন করেন

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার সোনারগাঁ পৌরসভার  ৯নং ওয়ার্ডে মাদরাসাতিল সিরাতুল মুস্তাকিম এতিম খানায়  মিলাদ ও দোয়া শেষে এমপি খোকা উন্নতমানের খাবার বিতরণ করে তাদের সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেন৷


এসময় পৌরসভাসহ বিভিন্ন এলাকার জাতীয় পার্টি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।




নিউজ ডেস্ক :-- নারায়ণগঞ্জ বন্দর  উপজেলার ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ড থেকে সম্ভাব্য মেম্বার পদে নির্বাচন করার প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা করেছেন আওয়ামীলীগ নেতা আকরামউল্লাহ্। সেই সাথে  সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাক্স ব্যাবহার করে সবাইকে সুস্থ জীবন যাপন করার আহবান জানিয়েছেন। 

ধামগড়  ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামিলীগ দলীয় নেতা  আকরামউল্লাহ্। যিবি এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে  সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী হিসেবে নিজেকে ঘোষনা করেন।

শিল্প এলাকা হিসেবে পরিচিত ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ড একটি জন গুরুত্বপূর্ন এলাকা।

এখানকার প্রতিটি রাস্তা ঘাট চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদের মাধ্যমে উন্নত । প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেখানে মসজিদ,মাদ্রাসা,কবরস্থান থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রেই উন্নয়নে ছোয়া বিদ্যমান। 

এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা আকরামউল্লাহ এলাকাবাসী সকলের নিকট দোয়া ও সহযোগীতা কামনা করেন। সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী  আকরামউল্লাহ একজন ব্যাবসায়ী ও সমাজ সেবক। ব্যাবসার পাশাপাশি এলাকার বিভিন্ন সমাজ সেবামূলক উন্নয়নের সাথে জড়িত। তিনি দরিদ্র জনগনকে সরকারি ও বেসরকারিভাবে সহযোগিতা করে থাকেন।  এমনকি এলাকার বিভিন্ন জনগন ও সামাজিক মসজিদে সরকারীভাবে  সুস্বাদু পানির ব্যাবস্থার জন্য  গভীর নলকুপ স্থাপন করে দিয়েছেন।


এছাড়া এলাকা থেকে মাদকদ্রব্য, ইভটিজিং, বাল্য বিবাহ সহ সকল প্রকার অবৈধ ব্যাবসার বিরুদ্ধে জনগনকে সাথে নিয়ে আন্দোলন করে যাবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন মেম্বার প্রার্থী আকরামউল্লাহ্। গত ১৫ই আগষ্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও পরিবারের সকল শহীদদের আত্বার মাগফেরাত কামনায় মিলাদ দোয়া ও তবারক বিতরনের আয়োজন করেছেন।

এমনকি ২১শে আগষ্ট গ্রেনেট হামলার প্রতিবাদে বিশাল মিছিল নিয়ে কাজীপাড়া জনসভায় যোগদান করেন। সেই লক্ষ্যে মেম্বার পদে নির্বাচিত হতে পারলে এলাকার রাস্তঘাট,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন করে যাবেন।

পাশাপাশি মাদকদ্রব্য, ইভটিজিং, বাল্য বিবাহ সহ সকল প্রকার অবৈধ ব্যাবসার বিরুদ্ধে জনগনকে সাথে নিয়ে আন্দোলন করে যাবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। সেই সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ ও ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান  আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদের দীর্ঘায়ু কামনা করেন।





নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক কমিটি ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে জমকালো আয়োজনে গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিন পালন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় সোনারগাঁও উপজেলার ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের মোগড়াপাড়া চৌরাস্তা এলাকার আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে কেক কেটে ও বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে প্রধান মন্ত্রীর জন্মদিন পালন করে নেতাকর্মীরা। 


এসময় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ সোনারগাঁও আসনের মাননীয় সাবেক সফল সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট  শামসুল ইসলাম ভুঁইয়া, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাহফুজুর রহমান কালাম,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার ফেন্সি,উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম,জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম,উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু,সাধারণ সম্পাদক আলী হায়দার,সাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশীদ মোল্লা,মোগড়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সোহাগ রনি,সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাসেল মাহমুদ,সনমান্দী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন সাবু সহ আওয়ামীলীগ যুবলীগ ছাত্রলীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

  



নিউজ ডেস্ক ঃ বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাধারণ মানুষের সমর্থন ও দোয়া প্রার্থনা করেছেন ধামগড় ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃ আসাদুজ্জামান ।


ধামগড় ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের সমর্থন ও দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার পদ প্রার্থী আসাদুজ্জামান জানান, তিনি আসন্ন ইউপি নির্বাচনে জয়যুক্ত হয়ে এলাকার অবহেলিত মানুষের সেবা করতে চান। ইউপি নির্বাচনে মেম্বার প্রার্থী হিসেবে নিজের অবস্থান আরো সুসংহত করতে প্রতিনিয়ত ধামগড় ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের প্রতিটি গ্রামের বিভিন্ন রাস্তাঘাট,মহল্লায় ও সাধারণ মানুষের ঘরে ঘরে ছুটে যাচ্ছেন ও দিনরাত ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করছেন।

এলাকার সকলের সাথে কুশল বিনিময় ও নানান সমস্যা নিয়ে তরুনদের সাথে মতবিনিময় করছেন।


একান্ত সাক্ষা‌তে তি‌নি জানান ধামগড় ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড কে একটি শোষনমুক্ত, দারিদ্র মুক্ত, শিক্ষাবান্ধব এবং বৈষম্যহীন আদর্শ গ্রাম হিসাবে গড়ে তুলার নিমিত্তে আমি  ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মেম্বার পদে প্রার্থী । এর জন্য আমি আমার গ্রামের মুরব্বী, ভাই,বোন,বন্ধু,চাচী খালাসহ সর্বসাধারণের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি।


আপনাদের দোয়া ও সমর্থন পেলে আমি ন্যায়ের পক্ষে অবিচল থেকে গরীব, দুঃখী মেহনতি মানুষের সেবা ও এলাকার উন্নয়ন করে যাব ইনশাল্লাহ।





নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ আ’লীগের সভাপতি, বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে নেত্রীকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা, জানিয়েছেন বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়নের দুবাই প্রবাসী তোফাজ্জল হোসেন মোল্লা। 



গণমাধ্যমকে জানান ‘২৮শে সেপ্টেম্বর জননেত্রী, গণতন্ত্রের মানসকন্যা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম  জন্মদিন। ১৯৪৭ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। বঙ্গবন্ধু দিয়েছেন দেশকে স্বাধীনতা আর শেখ হাসিনা দিয়েছেন দেশকে স্বর্ণিভরতা। দারিদ্রতামুক্ত একটি মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে পৃথীবির বুকে স্থান করে নিয়েছে। হয়ত তাঁর জন্ম না হলে আর তিনি না বেঁচে থাকলে বাংলাদেশকে আবারও পাকিস্তান বানিয়ে ফেলা হত।


 আল্লাহর রহমতে তিনি নিরলসভাবে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন এবং দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য আমরা সকলে তাঁর পাশে থেকে তাঁকে সহায়তা করার জন্য প্রস্তুত আছি। তাঁর জন্ম দিন উপলক্ষ্যে আমি তাঁর সুস্থতা, আরো সফলতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি’। এবং আমি আমার মদনপুর ইউনিয়ন বাসীর পক্ষে  থেকে ও আবারো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া ও সুস্থতা  কামনা করছি। 

 



নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ আ’লীগের সভাপতি, বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে নেত্রীকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা, জানিয়েছেন বন্দর উপজেলা মদনপুর ইউনিয়ন বাংলাদেশ  আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ আক্তার হোসেন। 


আক্তার হোসেন গণমাধ্যমকে জানান ‘২৮শে সেপ্টেম্বর জননেত্রী, গণতন্ত্রের মানসকন্যা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম  জন্মদিন। ১৯৪৭ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। বঙ্গবন্ধু দিয়েছেন দেশকে স্বাধীনতা আর শেখ হাসিনা দিয়েছেন দেশকে স্বর্ণিভরতা। দারিদ্রতামুক্ত একটি মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে পৃথীবির বুকে স্থান করে নিয়েছে। হয়ত তাঁর জন্ম না হলে আর তিনি না বেঁচে থাকলে বাংলাদেশকে আবারও পাকিস্তান বানিয়ে ফেলা হত।

 আল্লাহর রহমতে তিনি নিরলসভাবে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন এবং দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্য আমরা সকলে তাঁর পাশে থেকে তাঁকে সহায়তা করার জন্য প্রস্তুত আছি। তাঁর জন্ম দিন উপলক্ষ্যে আমি তাঁর সুস্থতা, আরো সফলতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি’। এবং আমি আমার মদনপুর ইউনিয়ন বাসীর পক্ষে  থেকে ও আবারো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া ও সুস্থতা  কামনা করছি। 




নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী আনন্দবাজার ব্রীজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ ও জাতীয় পার্টির অতিরিক্ত মহাসচিব ও প্রেসিডিয়াম সদস্য জননেতা লিয়াকত হোসেন খোকা।


 রবিবার (২৬ শে সেপ্টেম্বর-২০২১) বিকেল ৪টায় আনন্দ বাজার পুরাতন কালবার্টের সামনে ব্রীজ নির্মাণের শুভ সূচনা করেন সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা। মোহাম্মদ আলী মেম্বারের সঞ্চালনায় ও উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি গোলাম মুস্তাফা মুন্না'র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা। 



এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন,নারায়ণগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃমেহেদী ইকবাল, সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের  নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান শামসুল ইসলাম ভূঁইয়া,সোনারগাঁও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার ফেন্সি,স্থানীয় চেয়ারম্যান ডঃ আব্দুর রউফ নোয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইউসুফ দেওয়ান,ইউপি সদস্য বাসেদ মেম্বার সহ জাতীয় পার্টি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।




নিউজ ডেস্ক : নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁয়ে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের ভবন সম্প্রসারণ, নতুন অডিটোরিয়াম ভবন, ডাকবাংলো ভবন এবং ক্যাফেটেরিয়ার নতুন ভবন এর ভিত্তিপ্রস্তর  স্থাপন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। আজ রবিবার সকাল ৯টায় ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়। এ সময় মন্ত্রী জানান,ইতিমধ্যে উন্নয়ণ কাজের ৫০ শতাংশ অগ্রগতি হয়েছে,যতো তারাতাড়ি সম্ভব কাজ শেষ করা হবে। কারুশিল্পীদের জন্য ৪৮ দোকান বরাদ্দ দেয়া হয়েছে এবং কারুশিল্পীদের প্রণোদনা প্রদান করা হয়েছে। উল্লেখ্য গত ১০ এপ্রিল থেকে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর ভবন সম্প্রসারণ এবং অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণ' উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে।প্রকল্পের অনুমোদিত ব্যয় ধরা হয়েছে (একশত সাতচল্লিশ কোটি ছাব্বিশ লক্ষ আট হাজার টাকা)।


ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য  লিয়াকত হোসেন খোকা ,নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান এডঃ সামসুল ইসলাম ভূইয়া,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতিকুল ইসলাম, লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের পরিচালক সহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা  বৃন্দ।




নিউজ ডেস্ক :নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম এর জন্মদিন উপলক্ষ্যে তাকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য ও শম্ভুপুরা ইউপি. নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ মাহাবুব হোসেন সরকার।


এক শুভেচ্ছা বার্তায় মাহাবুব সরকার জানান, ‘ মাসুম  ভাই তিনি আমাদের প্রিয় বড় ভাই  ও আমাদের নেতা। আমরা তার দিক নির্দেশনা মোতাবেক ঐক্যবদ্ধভাবে দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। সুখে-দুঃখে তিনি আমাদের পাশে আছেন এবং এভাবেই আমরা মাসুম ভাইকে পাশে চাই। আমরা মাসুম ভাইয়ের সুস্থ্যতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। তাছাড়া তার জন্মদিন উপলক্ষ্যে তাকে আন্তরিক অভিনন্দন ও প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।




নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট আবু হাসনাত মোঃ শহিদ বাদল (ভিপি বাদল) এর জন্মদিন উপলক্ষ্যে তাকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য ও শম্ভুপুরা ইউপি. নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ মাহাবুব হোসেন সরকার।


এক শুভেচ্ছা বার্তায় মাহাবুব সরকার জানান, ‘ভিপি বাদল ভাই তিনি আমাদের প্রিয় ও শ্রদ্ধেয় নেতা। আমরা তার দিক নির্দেশনা মোতাবেক ঐক্যবদ্ধভাবে দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। সুখে-দুঃখে তিনি আমাদের পাশে আছেন এবং এভাবেই আমরা বাদল ভাইকে পাশে চাই। আমরা বাদল ভাইয়ের সুস্থ্যতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। তাছাড়া তার জন্মদিন উপলক্ষ্যে তাকে আন্তরিক অভিনন্দন ও প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।




নিউজ ডেস্ক :নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম খোকন।


সোনারগাঁও পোল্ট্রি ডিলার এসোসিয়েশনের সভাপতি ও কমিউনিটি পুলিশের সনমান্দী ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলাম খোকন ইতিমধ্যে সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে জনসাধারণের কাছে গিয়ে তাদের সাথে কুশল বিনিময় করছেন এবং খোঁজ খবর নিচ্ছেন। স্থানীয় জনগণও তার সাথে ভালোমন্দ শেয়ার করছেন আপনজনের মতোই করেছেন।


১৯৯০ সালে এরশাদ সরকার পতন আন্দোলনে অগ্রনী ভূমিকা পালনকারী রাজপথ কাপাঁনো ছাত্রনেতা জহিরুল ইসলাম খোকন আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ঘোষনা করার পর পুরো ইউনিয়ন জুড়ে আনন্দের বন্যা বইছে।


সনমান্দী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের নেতারা জানান, জহিরুল ইসলাম খোকন আওয়ামী লীগের দু:সময়ের একজন সক্রিয় কর্মী দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করার জন্য তিনি বিভিন্ন সময়ে ভূমিকা রেখেছেন। এরশাদ ও বিএনপি জামায়াত জোট সরকার পতন আন্দোলনের বিভিন্ন সভা ও মিছিলে জহিরুল ইসলাম খোকন অগ্রভাগে ছিলেন। বিএনপি জামায়াতের জোট সরকারের আমলে একাধিক মিথ্যা মামলার আসামী হয়েছেন। সনমান্দী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ইতিমধ্যে তাকে সমর্থন দিয়েছেন। জহিরুল ইসলাম খোকন জানান, দল আমাকে মনোনয়ন দিলে অবশ্যই আমি নির্বাচন করব।




 নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের নির্বাচন তফসিল ঘোষণা খুব শীঘ্রই করা হবে। জনগণ চায় উন্নয়ন। আর সেই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছেন ধামগড় ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ডের একজন পরিশ্রমি  ইউপি সদস্য,বাবুল হোসেন।  তিনি এলাকার উন্নয়নে নির্বাচিত হবার পর থেকে ইশতেহার অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন সংসদ সদস্য আলহাজ্ব একে এম  সেলিম  ওসমানের নির্দেশনা অনুযায়ী সার্বিক সহযোগিতায় রাস্তাঘাট উন্নয়নে রেখেছেন বিরাট ভূমিকা এমনকি নিজস্ব অর্থায়নেও রাস্তাঘাট তৈরি করেছেন। নাগরিকত্ব সুবিধা সুনিশ্চিত করতে জন্ম নিবন্ধন পত্র, মৃত্যু সার্টিফিকেট, ওয়ারিশ সার্টিফিকেট, বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা সহ সর্বপ্রকার সুবিধা জনগণকে যথোপযুক্ত ভাবে দিতে চেষ্টা করেছেন। করোনাকালীন সময় যোদ্ধা হয়ে মানুষের পাশে ছিলেন। 


ইউপি সদস্য বাবুল হোসেনের  সম্পর্কে ধামগড় ১নং ওয়ার্ডের জনগণ বলেন, আমাদের ওয়ার্ডে রাস্তাঘাট উন্নয়নসহ যাবতীয় সুবিধা তিনি বিগত সময়ে দিয়েছেন। এলাকার বিচার সালিশি সুষ্ঠুভাবে করেছেন। যেকোনো বিপদে আমরা তাকে পাশে পেয়েছি। তার মত একজন পরিশ্রমি  জনদরদি ইউপি সদস্য আমরা পুনরায় নির্বাচিত করতে চাই। আমাদের ওয়ার্ডটিকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করতে তার মতো একজন সুদক্ষ ইউপি সদস্য  আমরা এই ওয়ার্ডে আবারো  নির্বাচিত করতে চাই। তাই আবারো উন্নয়ন  আবারো বাবুল হোসেন মেম্বার। 

আসন্ন নির্বাচন সম্পর্কে মেম্বার বাবুল হোসেনের  কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার ওয়ার্ড এর জনগণ অত্যন্ত বেশি। পুনরায় নির্বাচিত হলে সর্বপ্রথম আমার ওয়ার্ডের বাজেট বৃদ্ধির জন্য আবেদন করব। যেন জনগণ তাদের প্রাপ্য অধিকার সুনিশ্চিত ভাবে পায়। আমি আমার নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী মানুষের মাঝে সেবা দিয়েছি। যে সকল কাজ অসমাপ্ত রয়েছে তা সমাপ্ত করার লক্ষ্যে আমি আবার পুনরায় নির্বাচিত হতে চাই। আমি কথা দিচ্ছি, আমি নির্বাচিত হলে আমার ১নং ওয়ার্ড টিকে একটি মডেল ওয়ার্ডে রূপান্তরিত করব। যে সকল রাস্তাগুলোতে পানি ওঠে ওই রাস্তাগুলোকে উঁচু করে পিচ ঢালাই করার ব্যবস্থা নেব। আমি নির্বাচিত হবার পর মাদক, ইভটিজিং, কিশোর গ্যাং নির্মূলে সর্বসময় কাজ করেছি। নির্বাচিত হলে এ দিকে আরো বেশি সুনজর দেব। ইউনিয়ন পরিষদের বাজেট অনুযায়ী স্কুল-কলেজের উন্নয়ন সহ একটি পরিচ্ছন্ন ওয়ার্ড গড়ে তুলবো। আসন্ন নির্বাচনে আমি আমার ওয়ার্ড বাসীর কাছে জানাই আমার নির্বাচনী সালাম। আমি সকলের দোয়া প্রার্থী। ইনশাআল্লাহ জনগণের দোয়া ও ভালবাসায় আমি শতভাগ সুনিশ্চিত পুনরায় নির্বাচিত হব।

 



নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁ পোল্ট্রি ডিলার এসোসিয়েশনের সভাপতি ও কমিউনিটি পুলিশের সনমান্দী ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলাম খোকন ইতিমধ্যে সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হয়ে ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে গনসংযোগ শুরু করেছেন।


১৯৯০ সালে এরশাদ সরকার পতন আন্দোলনে অগ্রনী ভূমিকা পালনকারী রাজপথ কাপাঁনো ছাত্রনেতা খোকন আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার ঘোষনার পর পুরো ইউনিয়ন জুড়ে আনন্দের বন্যা বইছে।


সনমান্দী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের নেতারা জানান, জহিরুল ইসলাম খোকন আওয়ামী লীগের দু:সময়ের একজন সক্রিয় কর্মী দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করার জন্য তিনি বিভিন্ন সময়ে ভূমিকা রেখেছেন। এরশাদ ও বিএনপি জামায়াত জোট সরকার পতন আন্দোলনের বিভিন্ন সভা ও মিছিলে জহিরুল ইসলাম খোকন অগ্রভাগে ছিলেন। বিএনপি জামায়াতের জোট সরকারের আমলে একাধিক মিথ্যা মামলার আসামী হয়েছেন। সনমান্দী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ইতিমধ্যে তাকে সমর্থন দিয়েছেন।


জহিরুল ইসলাম খোকন জানান, দল আমাকে মনোনয়ন দিলে সবাই আমকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবেনএই সহযোগিতা দোয়া ও সমর্থন চাই এলাকাবাসির কাছে। দলীয় নমিনেশন পেলে অবশ্যই আমি নির্বাচন করব। আর নির্বাচিত হলে সনমান্দী ইউনিয়নকে একটি মডেল উনিয়নে রূপান্তরিত করবো ইনশল্লাহ্।




নিউজ ডেস্ক : নওগাঁ সদর উপজেলার বাঁচারিগ্রাম মরহুম আব্দুল জলিল স্মৃতি সরণে নওগাঁ সদর ৫ মাননীয় সাংসদ সদস্য ব্যারিস্টার নিজামউদ্দিন জলিল জন এর নির্দেশ, পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি নওগাঁ জেলা শাখার উদ্যোগে তালের বীজ রোপণ করেছে। 


বুধবার (২২সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তার দুই পাশে তালবীজ রোপণের উদ্যোগ নেন এই সংগঠন প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তার দুই পাশে তালবীজ রোপণ করবেন ২ হাজার আজকে ৮০০ তালবীজ রোপণ করেছে যা চলমান থাকবে। 


এসময় উপস্থিত ছিলেন  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নওগাঁ জেলা শাখার উপ দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ বকুল,স্থানীয় ইউপি সদস্যা ও সুইটি,

সংগঠনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি নওগাঁ জেলা শাখার আহবায়ক নাহিদুজ্জামান রনি, যুগ্ম আহবায়ক মাহবুবুর রহমান রুমন, নূর মোহাম্মদ লাল, সদস্য সচিব ওয়াজকুরুন,  সদস্য দেলোয়ার, রিমেল,স্থানীয় কৃষক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ । 


এবিষয়ে সংগঠনের আহবায়ক নাহিদুজ্জামান রনি বলেন  বজ্রপাত ও প্রাকৃতিক দূর্যোগ থেকে রক্ষা পেতে তালবীজ রোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে তিনি আরও বলেন আমাদের মতো আপনারও বাড়িতে পড়ে থাকা তালের বীজ বাড়ির আশেপাশে রোপণ করুন। 

নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ এসময় বলেন এমপি এই নতুন রাস্তা নির্মাণ করে দিয়েছেন গ্রামের কৃষকের কথা ভেবে আমাদের গ্রামের ফসলের মাঠ থেকে ঘরবাড়ি অনেক দূরে হওয়ায় কৃষকরা মাঠে কাজ করার সময় বজ্রপাতে অনেকেই মারা যান। 


সেই সঙ্গে প্রতি বছর অনেক গবাদিপশু মারা যায় এ বজ্রপাতে, তাল গাছ এসব দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা করতে পাড়ে। তাই এমন উদ্যোগে আমি পাশে থাকতে পেরে অনেক ভালো লাগছে।




নিউজ ডেস্ক -- নারায়নগঞ্জ বন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেছেন,যে মাদক সেবন করে সে কিন্তু আমার আপনার বা আপনার আত্বীয় স্বজনদের কোন না কোন ব্যাক্তি।

প্রথমেই কৌতুহল বসত সেবন করলেও ধীরে ধীরে তারা পুরোপুরি মাদক সেবনে জড়িয়ে পরে। তারপর থেকে এদের ভিন্ন ভিন্ন নাম হয়ে যায়। আমি মনে করি আপনার ছেলে মেয়েরা ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে কখনো মাদকাসক্ত হয় না। যদি সে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করেন তাহলে কখনো এটা করবে না। মানব জাতি জন্মিলে  কৈশোরে পদার্পন হবেই। তবে তারা কিভাবে কৈশোর বয়সে কিশোর গ্যাং এ পরিনত হয়? এতে আপনার আমার পারিবারিক ও সামাজিক কিছুটা দূর্বলতা আছে। আপনারা যারা বয়ষ্ক মুরুব্বিরা  এখন মাথা নিচু করে চলেন তারা একটু মাথা উচু করেন। সবাই মিলে  কিশোরদের ভালোবাসা দিয়ে  বুঝানোর চেষ্টা করেন। দেখবেন এই কিশোরগুলো কখনো উশৃংখল হবে না। 

কিশোর গ্যাং বা মাদক কোন সমস্যা নয়।  আপনারা সকলে মিলে এক হয়ে তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হউন। তাহলে দেখবেন উঠতি বয়সী কিশোরদের মাঝে শ্রদ্ধা মায়া ও ভালোবাসা তৈরী হবে।

মঙ্গলবার ২১শে সেপ্টেম্বর বিকেল ৫.০০ঘটিকায় নারায়গঞ্জ বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়ন লাঙ্গলবন্দ বাসস্ট্যান্ডে আয়োজিত বিট পুলিশিং সভায় প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  

এসময় তিনি আরো বলেন, 

বিট পুলিশিং এর মাধ্যমের পুলিশের সেবা জনগনের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে চাই। উন্নয়নের জোয়ারে বাংলাদেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে।  সে সময় সেবামূলক প্রতিষ্ঠানগুলো কিভাবে অনুন্নত রাষ্ট্রের মত থাকে। এখন ৯৯৯ এ কল দিলেই পুলিশ আপনার ঘরে পৌচ্ছে যায়। 

অনুষ্ঠানে মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ আলহাজ্ব মাকসুদ হোসেন মাকসুদ চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দীপক চন্দ্র সাহা -অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বন্দর থানা, মোঃ আব্দুল কাদির ডিলার-বন্দর থানা আওয়ামিলীগ সহ-সভাপতি,কাজী মাসুদ রানা-ইনচার্জ কামতাল তদন্ত কেন্দ্র,৭নং ওয়ার্ড সাবেক মেম্বার মন্জুর হোসেন মন্জু, ৭নং ওয়ার্ড ইয়ানবী মেম্বার,২ নং ওয়ার্ড বিল্লাল হোসেন মেম্বার ও সোহেল মেম্বার সহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে ৩ নং বিট পুলিশিং দায়িত্ব পালন করেন মোঃ ফয়সাল আলম-এস আই, কামতাল তদন্ত কেন্দ্র ও সার্বিক সঞ্চালনায় মোঃ আবুল কাসেম সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত ইন্সপেক্টর। 

অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন সাংবাদিক এস এম নাসের-দৈনিক দেশ।


 


নিউচ ডেস্ক : বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়নে আওয়ামী  স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রধান কার্যলয় শুভ উদ্বোধন ও দোয়া আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 


সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর  বিকাল ৪ ঘটিকায়  সময়  ধামগড় ইউনিয়ন ৬ নং ওয়ার্ডের গকুলদাসের বাগ এলাকায়, আওয়ামী  স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রধান কার্যলয় শুভ উদ্বোধন ও দোয়া আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সানোয়ার হোসেন বিপ্লব, এর সভাপতিত্বে, 

 উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান ও বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ।

 উদ্ভোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,   নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক আহ্বায়ক আলহাজ্ব নিজাম উদ্দীন আহম্মেদ,

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ন আহ্বায়ক গোলাম কিবরিয়া খোকন,

বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুম আহম্মেদ। 

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আলমাস ভূইয়া।  আয়নাল হক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা, চেয়ারম্যান, আওয়ামীলীগ নেতা ও ধামগড় ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আলহাজ্ব আজিজুল হক আজিজ।

২৬ নং ওয়ার্ড সাবেক কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনু।

বন্দর উপজেলা  আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাহান মোল্লা, মদনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আক্তার হোসেন। ধামগড় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী ফয়সাল আহমেদ হৃদয়।

সহ-সভাপতি বাচ্চু মিয়া সহ আওয়ামী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

 



নিউজ ডেস্ক  :. মহাসড়ক দাপিয়ে বেড়ানো থ্রি হুইলার এর বিরুদ্ধে অভিযান চালিছেন কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ।  নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করেন কাঁচপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান। 


সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ১ শতাধিক থ্রি হুইলার সিএনজি অটোরিক্সা জব্দ করা হয়েছে। 


থ্রি হুইলার এর কারণে মহাসড়কে ঘটে বিভিন্ন সময় নানান দুর্ঘটনা ঘটে এতে করে জীবন বিসর্জন দিতে হয়েছে অনেকের। মহাসড়ককে দ্রুত গতিতে চলার কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এ সকল দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়।


থ্রি হুইলার এর বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা থাকলেও সে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মহাসড়ক দাপিয়ে বেড়াতে দেখা যায় অনেক থ্রি হুইলার কে।


মহাসড়কে যেন দুর্ঘটনা না ঘটে এবং মহাসড়কে চলাচলরত সাধারণ জনগণ যেন নির্বিঘ্নে তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে এটা নিশ্চিত করার জন্যই এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। 


কাঁচপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, আমরা বারবার সতর্ক করার চেষ্টা করেছি এবং বলেছি মহাসড়কে কোন থ্রি হুইলার চলবে না। এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে যাঁরা মহাসড়কে থ্রি হুইলার চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান।


তিনি আরো বলেন, মহাসড়ক দুর্ঘটনা রোধকল্পে থ্রি হুইলার অটো রিকশা এবং সিএনজি মহাসড়কে চলতে পারবে না । আজকে ১শত অটোরিকশা এবং সিএনজি আটক করা হয়েছে এবং দুই লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মহাসড়কে চলাচলরত পথচারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনে আরো কঠোর অবস্থানে যেতে প্রস্তুত হাইওয়ে পুলিশ। আমরা সপ্তাহ ব্যাপী এই অভিযান পরিচালনা করবো।  


অভিযানকালে উপস্থিত ছিলেন টিআই মশিউর রহমান; টি আই মেহেদী হাসান; বেনু দাস সহ কাঁচপুর হাইওয়ে থানার কর্মরত পুলিশ সদস্যরা।




নিউজ ডেস্ক :বন্দর উপজেলা ধামগড় ইউনিয়নে এলাকায় বাসীর কাছে দোয়া  চেয়ে মতবিনিময়  করলেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আজিজুল হক আজিজ।

 বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮ ঘটিকায় সময়, ধামগড় ইউনিয়ন ৫ নং ওয়ার্ডের আমৈর বটতলা ওএলাকায় অবস্থিত তাওলাদ মার্কেটের সামনে,  আয়নাল হক ফাউন্ডেশনের  প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, আওয়ামী লীগ নেতা ও ধামগড় ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, প্রয়ত তিন বাবের সফল চেয়ারম্যান  আয়নাল হকের সুযোগ্য সন্তান আলহাজ্ব আজিজুল হক আজিজ " এলাকার সকলের কাছে দোয়া চেয়ে মতবিনিময় করেছেন।  এসময় উপস্থিত মুরুব্বী, নেতাকর্মী ও যুবকদের সবার জন্য সকালের খাবারের (নাস্তা) ব্যবস্থা করেন। 



এসময়ে  আজিজুল হক আজিজ বলেন, আমি অত্র ইউনিয়ন পরিষদের তিন তিনবারে নির্বাচিত প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আয়নাল হক চেয়ারম্যানের পুত্র।জীবনে নেশা কি তা অনুভব করিনি, চা পর্যন্ত পান করিনি, অথচ সারা ধামগড় নেশা আর দূর্নীতিতে ভরে গেছে। সমাজের প্রতিটি রন্দ্রে রন্দ্রে মাদক দূর্নীতি আর দালাল চক্র ভরে গেছে,আমার প্রথম লখ্য হলো মাদক কে নির্মুল করা, ধামগড় ইউনিয়ন বাসীর সেবা করা, আপনারা আমাকে একটিবারের জন্য সুযোগ দিন আমি ধামগড় ইউনিয়ন  কে একটি আধুনিক মডেল হিসেবে গড়ে তুলবো, আমার কোন চাওয়া  পাওয়া  নেই তবে একটাই  চাওয়া ধামগড় বাসীর সেবা করা, তাদের  সুখ দুঃখের  সাথী হয়ে সেবা মুলক কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন,ধামগড় ইউনিয়ন ৫ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক, বাচ্চুমিয়া, আজিজুল মাতব্বর, তাওলাদ হোসেন, মোতালিব মাতব্বর,ধামগড় ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি  পদপ্রার্থী আনিছুর রহমান আনিস, আতাউর রহমান, সহ  আওয়ামীলীগের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।





নিউজ ডেস্ক :অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় সেই ১৯৯৮ সাল থেকেই একের পর এক পুরস্কার অর্জনকারী, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সিনিয়র রিপোর্টার সাঈদুর রহমান রিমন পাঠকপ্রিয়তায় আজও শীর্ষ সারিতেই রয়েছেন। জাতীয় পর্যায়ে হৈচৈ সৃষ্টিকারী অসংখ্য অমিমাংসিত কাহিনীর নেপথ্য রহস্য উদঘাটন করে তিনি বারবারই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। চলতি ঘটনাবলীর সঙ্গে মাঠ পর্যায়ে তৎপর থাকার মাধ্যমে এতো দীর্ঘ সময় ধরে জনপ্রিয়তা উত্তরোত্তর বাড়িয়ে চলা রিপোর্টারের সংখ্যা হাতে গোণা কয়েকজনের মধ্যেও তিনি অন্যতম। বাংলাদেশ সীমান্তে উলফা, এনডিএফবি, আচিক ফ্রন্টের সশস্ত্র ঘাটিসমূহ আবিস্কার, বন পাহাড়ের বিপন্ন মানবতার হৃদয় কাপানো নানা তথ্যাদি উদঘাটন, ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট জাতির জনক শখ মুজিবুর রহমান হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে গড়ে তোলা বীরত্বপূর্ণ প্রতিরোধযুদ্ধের অজানা ইতিহাস উন্মোচন,ইবএনপি নেতা ইলিয়াস গুমের নেপথ্য কাহিনী এমনকি সর্বশেষ টেকনাফে মেজর সিনহা হত্যাকান্ডের সাড়া জাগানো তথ্য উদঘাটনের মাধ্যমে সকল শ্রেণীর পাঠকদের মন জয় করে নিয়েছেন। দেশ ও মানুষের কল্যাণে বারবার নিজের জীবনকে বিপন্ন করে অনণ্য দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী প্রথিতযশা সাংবাদিক সাঈদুর রহমান রিমন বর্তমানে সংঘবদ্ধ চক্রের সীমাহীন আক্রোশে আক্রান্ত হয়েছেন। মাত্র ক’দিন আগেই তার বিরুদ্ধে হুইপ সামশুল হক চৌধুরী  ৫০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করলেন। এ নিয়ে বাদ, প্রতিবাদ, মানববন্ধনে উত্তাল হয়ে উঠে সারাদেশ। ঠিক একইসময়ে কতিপয় নামধারী অপসাংবাদিক ও চিহ্নিত অপরাধী মিলেমিশে সাংবাদিক সাঈদুর রহমান রিমনের জীবনকে বিপন্নদশায় ঠেলে দিয়েছেন। তথাকথিত ঢাকা মহানগর প্রেসক্লাব, মিরপুর প্রেসক্লাব, সাংবাদিক জোট ইত্যকার ব্যানারের আড়ালে গড়ে ওঠা পেশাদার অপরাধীদের ভাড়ায় খাটিয়ে প্রভাবশালী চক্র রিমনকে নিশ্চিহ্ন করার ফায়দা লুটতে চাইছেন। সাংবাদিক সাঈদুর রহমান রিমনের ফেসবুক ওয়ালে লেখা “আক্রান্ত সাংবাদিকের আর্তনাদ” শীর্ষক লেখাটি হুবুহু তুলে ধরা হলো।)


ব্যাথানাশক ওষুধপথ্য নার্ভগুলোকে এতটাই দুর্বল করে দেয় যে, দেহ মন থেকে ঘুমের আবেশ যেন কাটাতেই চায় না। গত সোমবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ঘুম থেকে উঠেই ডাইনিং পেরিয়ে রিডিং রুমে যাবার সময় আচমকা যেন সম্বিত হারিয়ে ফেলি। ধারণা হলো, অতি ক্ষমতাধারী কারোর জোরসে ধাক্কায় দেয়ালে ছিটকে পড়লাম, সেখান থেকে জুবুথুবু অবস্থায় মেঝেতে। ফলে ডান পায়ের হাটু কিছুটা ডিসপ্লেস মনে হলো, মুচরে গেল পায়ের চারটা আঙ্গুল। পরে অনুভব করলাম কাধসহ পিঠের অংশেও ভয়ানক আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছি আমি। ফলে উচ্চক্ষমতার ব্যাথানাশক ওষুধ সেবনের মাধ্যমে যন্ত্রণা লাঘব করতে গিয়ে আটকে পড়লাম ঘুমের ফাঁদে। আর এ অসুস্থতাজনিত শয্যাশায়ী থাকাকেই মোক্ষম সুযোগ হিসেবে বেছে নিলো সংঘবদ্ধ চক্র। কারা কারা মিলে এ চক্র? চার বছর আগে বাংলাদেশ প্রতিদিনে একাধিক প্রতিবেদনের মাধ্যমে বাড্ডার পিন্টুর নেতৃত্বে গড়ে ওঠা বহুমুখী এক প্রতারক চক্রকে তছনছ করে দিয়েছিলাম…সেই চক্রের মূল হোতা পিন্টু।


পল্লবী থানার ভেতরে বোমা বিস্ফোরণসহ জঙ্গি নাটক সাজানোর মূল হোতা, ঢাকা উত্তর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাইজুল ইসলাম চৌধুরী বাপ্পী ও অপরাধ সহযোগী বলে কথিত দালাল সাংবাদিক। কারণ আমার রিপোটের কারণেই ওই ঘটনায় মিরপুরের ডিসি, এডিসি, ইন্সপেক্টর, অফিসার্ন ইনচার্জ ও দুই এসআইকে স্ট্যান্ডরিলিজ করা হলেও অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে এখনো বাপ্পী রয়েছেন বহাল তবিয়তে। হুইল সাবানের মেগা কার্টন বোঝাই চকচকে নোট পৌঁছে দিয়েও শুধু আমার নজরদারির কারণে নিজেকে আজও অভিযোগমুক্ত করাতে পারছেন না। দন্ডমুন্ডের কর্তা বলে দিয়েছেন, কার্টন থাকুক, কিন্তু ওই সাংবাদিকটার দৃষ্টি এদিক থেকে না সরানো গেলে আমি তোমাকে ধোয়া তুলশী পাতা বানাতে পারবো না। এ কারণে দালাল সাংবাদিককে সঙ্গে নিয়ে প্রথমেই তিনি অভিযোগ করেছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিনে, চেষ্টা করেছিলেন মিরপুরের দিকে যেন আমার পা ফেলা নিষিদ্ধ করে দেয়া হয়। কিন্তু পুচকে অপরাধীর ধারণাও নেই যে, সাঈদুর রহমান রিমন এদেশে পেশাদার জাদরেল সম্পাদক নঈম নিজামের টিম মেম্বার। তিনি শুধু চাকরিদাতা সম্পাদক নন, প্রতিটি কর্মির পিতৃতুল্য অভিভাবক। কর্মিদের প্রতি অসীম বিশ্বাস নিয়েও তাদের প্রতিটি কদম তিনি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেন। নঈম নিজাম দরবেশ কিংবা সাই বাবা নন, কিন্তু তার সৈনিকেরা কে কী বলতে চায় নিজেই তা আগাম বলে দেন। সেখানে রিমনের চলাফেরা বন্ধুর পথে, আরো বেশি বাঁকা। সভাবতই আমার কদমে আরো বেশি নজরদারির কথা বলার অপেক্ষা রাখে না।


পল্লবীর শীর্ষ অপরাধ জুটির মিশন ব্যর্থ হওয়ার পর থেকেই রিমনকে সরাসরি সাইজ করতে দিনের পর দিন ওৎ পেতে আছেন। এরইমধ্যে চক্রটি সীমাহীন নোংরা খেলায় মেতে উঠেছেন, ফেসবুকের পাতায় পাতায় নানা নামের আইডি খুলে কল্পিত নানা অভিযোগ তুলে আমার ৩২ বছরের সাংবাদিকতাকে চ্যালেঞ্জ জানানোর চেষ্টায় লিপ্ত। এখন পর্যন্ত তাদের কারো লেখনিতে দুইটি, আবার কারো লেখনিতে তিনটি পর্যন্ত বউ আবিস্কার করার চেষ্টা করছেন, তাছাড়া অসংখ্য বান্ধবীর সন্ধানেও গলদঘর্ম অবস্থা তাদের। নারীঘটিত রসকসের লেখনি ছাড়া অন্য কোনো নিউজের কথা ভাবতেও পারেন না তারা। ভাড়াটে লেখক দ্বারা একেক সময় একেক ধরনের এমনকি পরস্পর বিরোধী নানা পোস্ট দিয়ে তা পাঠকদের মাঝে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন তারা।


গোল্ড স্মাগলারদের নামধাম, পরিচয় তুলে ধরে পর পর কয়েকটি লিড রিপোর্ট করার পর চরমভাবে বিপাকে পড়ার কথাটি বারবার মনে পড়ছে। ওই সময় গোল্ড স্মাগলাররা মাত্র তিন সপ্তাহের মধ্যে আমার নয় জন স্ত্রী সাজিয়ে বাসার গেট পর্যন্ত পাঠিয়েছিল। তারা প্রকাশ্যেই ঘুরে ঘুরে কাবিননামা দেখাতো, আমার বাসায় ফোন করে এক স্ত্রী আরেক স্ত্রীকে ঘরে তুলে নেয়র সুপারিশ পর্যন্ত করতো। তারও আগে ৩৭ এমপি’র দূর্নীতি লুটপাটের নানা কাহিনী প্রকাশ করে তাদের মধ্যকার ৩১ জনই জোট বেধে দফায় দফায় মিটিং করে আমাকে চরম শিক্ষা দেয়ার প্রস্তুতি নেন। তবুও তো বেঁচে আছি এখনও, তবুও তো পথ চলি পায়ে হেটে, গন্তব্যে যাতায়াত করি লোকাল বাসে চড়েই। এই বেশ ভাল আছি।


মিরপুরের অপরাধী নেতা ও কথিত সাংবাদিক চক্রের সঙ্গেই যুক্ত হয় যশোর কেশবপুর এলাকার এক চরমপন




নিউজ ডেস্ক : নারায়নগঞ্জের বন্দর উপজেলায় শুধুমাত্র ভোটার আইডির ভুলের কারণে ৬ বছর ধরে প্রয়াত এক স্কুল শিক্ষকের স্ত্রী তার স্বামীর পেনশনের টাকা উত্তোলন করতে না পেরে রাস্তায় ভিক্ষা করে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।


স্থানীয় সাংবাদিকদের মাধ্যমে এ খবর পাওয়া মাত্র বন্দরের ইউএনও শুক্লা সরকার ওই অসহায় নারী মায়া বেগমকে তার কার্যালয়ে বুধবার সকালে ডেকে আনেন।


সংশ্লিষ্ট সব দফতরে নিজে যোগাযোগ করে বিধবা ওই নারীর সমস্যা দ্রুত সমাধান করে পেনশন পাওয়ার বাধা দূর করার তাগিদ দেন।


শুধু তাই নয়, স্কুল শিক্ষকের কোন সন্তান না থাকায় তার জীবীকা নির্বাহের জন্য নিজ উদ্যোগে একটি দোকান এবং কেউ তাকে দুই শতাংশ জমি দান করলে সেখানে সরকারি খরচে একটি ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার আশ্বাস দেন ইউএনও।


ইউএরও শুক্লা সরকারের এই মহানুভবতায় আপ্লুত মায়া বেগম বলেন, বন্দরের নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তাদের গাফিলতির কারণে গত ছয়টি বছর অনাহারে অর্ধাহারে ভিক্ষা করে জীবন যাপন করছি। বছরের পর বছর ধরে আমার জাতীয় পরিচয় পত্রের ভুল সংশোধনের অনুরোধ জানিয়ে আসলেও তারা আমাকে নানা অজুহাতে অফিস থেকে বের করে দিয়েছে।


সম্প্রতি আমার স্বামীর সহকর্মী মো. হাকিম মাস্টারের ছেলে আলোকিত বাংলাদেশের সাংবাদিক হাজী সফিকুল ইসলাম আমাকে রাস্তায় ভিক্ষা করতে দেখে সব কথা শুনে ইউএরও ম্যাডামের কাছে নিয়ে যান।


তিনি আমার কথা শুনে সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দফতরে নিজে ফোন করে দ্রুত আমার ভোটার আইডি সংশোধনে প্রয়োজনয়ি সব কাজ দ্রুত শেষ করার তাগিদ দেন। আমি প্রাণ খুলে ইউএনও ম্যাডাম এবং সাংবাদিকদের জন্য দোয়া করছি।

   

উল্লেখ্য, মায়া বেগম নামে ওই গৃহবধূর শিক্ষক স্বামী দ্বীন মোহাম্মদ খান ১৯৯২ সালে পেনশনে যান।  ১৯৯৩ সালে তিনি মারা যাওয়ার পর থেকে তার স্ত্রী মায়া বেগম স্বামীর পেনশন-ভাতা উত্তোলণ করে আসছিলেন। 


২০১৫ সালে জাতীয় পরিচয় পত্রে ভুল নাম উঠার কারণে গত ৬ বছর ধরে তিনি স্বামীর পেনশনের টাকা তুলতে পারছেন না।  সন্তানহীন এই বৃদ্ধা এখন দ্বারে দ্বারে ভিক্ষা করে অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করছেন।


মায়া বেগম জানান, জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনের জন্য বার বার বন্দর নির্বাচন কার্যালয়ে গেলেও তাকে সেবা না দিয়ে বের করে দেওয়া হয়।


নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের  গাফিলতির কারনে একজন স্কুল শিক্ষকের বৃদ্ধা স্ত্রী এখন দ্বারে দ্বারে ভিক্ষা করছেন। অর্ধাহারে অনাহারে অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করছেন মায়া বেগম।


এ ব্যাপারে বন্দর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা শুল্কা সরকার জানান, বিষয়টি আগে কেই আমাকে জানায়নি। ভুক্তভোগী মায়া বেগম বুধবার আমার কাছে এসেছিলেন। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে, আশা করি দ্রুত তার সমস্যার সমাধান হবে।




নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁও উপজেলা চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম ভূইয়া মনোনয়ন পাওয়ায় মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে রবিবার বাদ আসরের পর সোনারগাঁয়ে বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদে এই মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী ডা: আব্দুর রউফ। 



এসময় বৈদ্যের বাজার ইউনিয়নের মোহাম্মদ আলী মেম্বারের সঞ্চালনায়, উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাসুদ রানা মানিক,বৈদ্যের বাজার ইউপি.২নং ওয়ার্ড মেম্বার ইসমাইল,বৈদ্যের বাজার ইউপি.৯নং ওয়ার্ড মেম্বার বাসেদ, বৈদ্যের বাজার ইউপি.৮নং ওয়ার্ড মেম্বার আইয়ুব আলী, বৈদ্যের বাজার ইউপি. ১নং ওয়ার্ড মেম্বার মোশাররফ, মহিলা মেম্বার অনোয়ারা, ছরিয়া মেম্বারসহ সকল নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। 



শনিবার আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধির মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় এ মনোনয়ন দেওয়া হয়। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গণভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।


সোনারগাঁও উপজেলা বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন  চেয়ারম্যান হাজী ডা: আব্দুর রউফ বলেন, সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনে এডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়াকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এবং নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের প্রাণ পুরুষ শামীম ওসমান এমপির হাতকে শক্তিশালী করতে আওয়ামীলীগ ও সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা-কর্মীকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানান ৷

 



নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার সরকারী ডাকঘর বড়নগর-১৪৪১ নামে ভবনটি ব্যক্তিগত অর্থায়নে সংস্কার করে দিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা সাবেক ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হাজি শাহ্ মো. সোহাগ রনি। 


রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সোনারগাঁও উপজেলার মোগরাপাড়া বাজারস্থ অবস্থিত বড়নগর-১৪৪১ ডাকঘর ভবনটি নতুন করে সংস্কার করে উদ্বোধন করা হয়। 


এ সময় হাজি শাহ্ মো. সোহাগ রনি জানান, সরকারী বড়নগর-১৪৪১ নামে ডাকঘরটির সংস্কারের অভাবে সামন্য বৃষ্টি হলেই ভবনের ভেতরে পানি পড়ে জরুরী চিঠি ও কাজগপত্র ভিজে নষ্ট হয়ে যেত। কিছু দিন আগে তিনি তার খুবই প্রয়োজনীয় একটি চিঠির ফাইল আনতে ডাকঘরে যায়। এ সময় ভবনটির এ অবস্থা  দেখে পোষ্ট মাষ্টারকে ভবনটি সংস্কার করে দিবে বলে কথা দেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় ২০দিনে ২ লাখ টাকা খরচ করে ভবনটি সংস্কার করে দেয় তিনি।




নিউজ ডেস্ক : মোগড়াপাড়া ইউপির চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবুকে টাকা না দিলে কোন কাজ দেয়না এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর সর্বত্র আলোচনা সমালোচনা সৃষ্টি হয়।চেয়ারম্যান নিজেকে বাচাঁতে সেই মহিলা মেম্বার ও তার স্বামীকে দিয়ে সাফাই সাক্ষী করিয়েছেন।


শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলন করানো হয় সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার জিয়াছমিন ও তার স্বামীকে দিয়ে ৩৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও এসেছে সাংবাদিক সম্মেলনের। কি বলছে তার আগাগোড়া কিছুই বোঝা যাচ্ছেনা।মোগড়াপাড়া ইউপির চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজ্বী সোহাগ রনিকে জিয়াছমিনের ভিডিওর সাথে জড়ানোর অপচেষ্ঠা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন সোহাগ রনির অনুসারীরা।পাঠকদের অনুরোধে পূর্বে প্রকাশিত সংবাদটি হুবহু তুলে ধরা হলোঃ

নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও উপজেলার মোগড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবুকে ঘুষের টাকা না দিলে কোন উন্নয়ন প্রকল্প মেম্বারদের দেয়া হয়না বলে জানিয়েছেন ৪/৫/৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার জিয়াছমিন।

প্রায় দেড় মিনিটের একটি ভিডিও ক্লিপ আমাদের হাতে এসেছে।তাতে জিয়াছমিন মেম্বারকে একজন প্রশ্ন করেন উন্নয়নমুলক কাজ পাইছেন।চেয়ারম্যান কে কিছু দিতে হয়।জিয়াছমিন মেম্বার বলেন উনাকে (বাবু) চেয়ারম্যান কে ৫০ হাজার টাকা, ভ্যাট বাবদ ৫৫ হাজার টাকা দিতে হইছে। ১লাখ ১০ হাজার টাকা নিয়া গেছে।তদন্তে বা পরিদর্শনে আইলে দেড়/দুই/ আড়াই হাজার টাকা দিতে হয়।

একটি সুত্র হতে জানা যায় মোগড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবুকে ১% হতে তাকে ঘুষ দেয়া না হলে মেম্বারদের কোন কাজ দেননা।কোন মেম্বার কে কাজ পেতে হলে চেয়ারম্যান  বাবুকে ঘুষ দিতে হবেই।নইলে সংশ্লিষ্ট মেম্বার কে কোন উন্নয়ন মুলক কাজ দেয়া হয়না।

এ ব্যাপারে মোগড়াপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবুর মুঠোফোনে  জানতে কল দেয়া হলে তিনি রিসিভ করে বলেন,আমার যে প্রতিদ্বন্দ্বী সে এই ভিডিও টা করেছে এবং তার কন্ঠ আপনি ভাল করে দেখেন।




নিউজ ডেস্ক :


নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুঁইয়াকে নৌকা প্রতীকে মনোনিত করায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে নৌকার প্রার্থীকে সমর্থন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সোনারগাঁও উপজেলা ও পৌরসভা জাতীয়পার্টি।


জানাগেছে, ১১ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকেলে এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার বাসভবনে সোনারগাঁও উপজেলা ও পৌর জাতীয়পার্টির শীর্ষ নেতাদের নিয়ে এক জরুরী সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুঁইয়ার মত একজন প্রবীণ ও স্বচ্ছ রাজনীতিককে নৌকা প্রতীকে মনোনিত করায় সভা থেকে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়।


সভার সর্বসম্মতিক্রমে এই নির্বাচনে জাতীয়পার্টির প্রার্থী না দেয়ার সিদ্ধান্ত হয় এবং এই সিদ্ধান্তকে কেন্দ্রীয় জাতীয়পার্টিকে অবহিত করারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। একই সঙ্গে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুঁইয়ার প্রতি সমর্থন ঘোষণা করা হয়।


সভায় বক্তারা বলেন, জাতীয়পার্টি সব সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকারের ভাল ভাল কাজগুলোকে সমর্থন করে আসছে। জাতীয়পার্টি চায় ভাল যোগ্য সৎ জনদরদি ব্যক্তিই হোক জনপ্রতিনিধি যিনি জনগণের কল্যাণে কাজ করবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভাল যোগ্য সৎ ব্যক্তিকে সোনারগাঁও উপজেলা পষিদের উপ-নির্বাচনে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন।


বক্তারা আরও বলেন, অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুঁইয়া একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা। দলমত নির্বিশেষে গ্রহণযোগ্য এমন একজন প্রার্থীকে সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে মনোনিত করায় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই।


অন্যান্য বক্তারা বলেন, সামসুল ইসলাম ভুঁইয়া মহান স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক সহচর ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর আমল থেকে তিনি রাজনীতি করে আসছেন। বঙ্গবন্ধুর সহচর প্রয়াত ভাষা সৈনিক জননেতা সামসুজ্জোহা সাহেবের সঙ্গে তিনি রাজনীতি করেছেন। তিনি দীর্ঘ ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে রাজনীতি করে আসছেন। আমরা জাতীয়পার্টি এই নির্বাচনে কোন প্রার্থী না দিয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুঁইয়াকে সমর্থন করতে চাই।


সভায় উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়পার্টির আহ্বায়ক সানাউল্লাহ সানু, সদস্য সচিব আবু হানিফ ভুঁইয়া, মহানগর জাতীয়পার্টির সদস্য সচিব কাউন্সিলর আফজাল হোসেন, সোনারগাঁও উপজেলা জাতীয়পার্টির সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম ইকবাল, সহ-সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভুঁইয়া, পৌরসভা জাতীয়পার্টির সভাপতি এমএ জামান, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মোক্তার হোসেন, জাতীয়পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির প্রচার সম্পাদক মাসুম, মাহমুদ হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রায়হান জয়,  জেলা জাতীয়পার্টির সদস্য মোক্তার হোসেন, সারোয়ার হোসেন, মল্লিক হোসেন হিরু, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আনিসুর রহমান বাবু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক পার্টির আহ্বায়ক ফয়সাল আহাম্মেদ, সনমান্দি ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির সভাপতি আবুল হোসেন, জামপুর ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির সভাপতি আশরাফুল মাকসুদ ভুঁইয়া, সোনারগাঁও পৌর জাতীয়পার্টির সদস্য কাউসার, জেলা জাতীয় যুব সংহতির যুগ্ম আহ্বায়ক রাসেল ভুঁইয়া, কাজী নাজমুল ইসলাম লিটু, পিরোজপুর ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির সহ-সভাপতি আবু সাঈদ সাব মিয়া, মুজিবুর রহমান, সোনারগাঁও পৌর স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি ওমর ফারুক টিটু, সহ-সভাপতি আলমগীর হোসেন অপু, সোনারগাঁও উপজেলা জাতীয় ছাত্র সমাজের সভাপতি ফজলুল হক মাস্টার, পিরোজপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সভাপতি আলমগীর কবির, সাধারণ সম্পাদক শহিদ সরকার সহ শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা।


এখানে উল্লেখ্যযে, ১১ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভুঁইয়াকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেয় আওয়ামীলীগ। দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেছেন।




নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন এডভোকেট মো: সামসুল ইসলাম ভুঁইয়া। তিনি সোনারগাঁউপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।


আজ শনিবার ( ১১ সেপ্টেম্বর) আওয়ামী লীগের সংসদীয় ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধির মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় তাকে এ মনোনয়ন দেওয়া হয়। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গণভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।


প্রসঙ্গত গত ২২ জুলাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশাররফ হোসেন ইন্তেকাল করেন।


আগামী ৭ অক্টোবর সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ উপ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলো।তারা হলেন,নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাহফুজুর রহমান কালাম, সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু, সাধারণ সম্পাদক আলী হায়দার, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম, বর্তমান উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বাবুল ওমর বাবু,ব্যবসায়ী মনির হোসেন।




নিউজ ডেস্ক : সোনারগাঁয়ে দিনব্যাপী ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইন ও রক্তদান সচেতনতামূলক এবং করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ফ্রি মাস্ক বিতরণ করেছে ব্লাড ফর নারায়ণগঞ্জ ও সোশ্যাল এইডার ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন,ঝাউচর মানবসেবা স্বেচ্ছায় রক্তদান। 


শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টায় সোনারগাঁওয়ে পিরোজপুর ইউনিয়ন এর ঝাউচর রেনেসাঁ কিন্ডারগার্টেন বালুর মাঠে ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইন ও মাস্ক বিতরণ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। সকাল ১০ থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে এই কর্মসূচি। পরে করোনা প্রতিরোধে ফ্রি মাস্ক বিতরণ করা হয়।


স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবীরা , ব্লাড ফর নারায়ণগঞ্জ এর উপদেষ্টা পলাশ চৌধুরী, সভাপতি  সাইফুল ইসলাম সাইফ, সহসভাপতি তরিকুল ইসলাম,সাধারণ সম্পাদক অমিত হাসান মিরাজ,সোশ্যাল এইডার ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন নারায়ণগঞ্জ শাখার উপদেষ্টা মো. নওয়াব, সমন্বয়ক রাকিবুল হাসান অপু, সদস্য মোসলেহ উদ্দীন, রায়হান মোল্লা, ঝাউচর মানবসেবা স্বেচ্ছায় রক্তদানের এডমিন গাজী ফয়সাল উপস্থিত ছিলেন। 



এ সময় ব্লাড ফর নারায়ণগঞ্জ এর  উপদেষ্টা পলাশ চৌধুরী বলেন, বর্তমানে যেকোন কাজেই রক্তের গ্রুপ প্রয়োজন হচ্ছে। প্রত্যন্ত এলাকার মানুষেরা অধিকাংশই তাদের রক্তের গ্রুপ সম্পর্কে অবহিত না। বিশেষ করে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও অনেকে তাদের রক্তের গ্রুপ জানে না। এজন্য আমরা তাদেরকে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় ও রক্তদানে উদ্ভুদ্ধ করতে ফ্রী ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্পেইনের আয়োজন করেছি।

 



নিউজ ডেস্ক :"ডেঙ্গু প্রতিরোধে এগিয়ে আসুন" স্লোগানকে সামনে রেখে  পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটি সোনারগাঁ শাখার উদ্যোগে সোনারগাঁ পৌরসভার গোল চক্করে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের গনযোগাযোগ ও উন্নয়ন বিষয়ক উপ-সম্পাদক, সোনারগাঁ পৌরসভার সুযোগ্য মেয়র পদ-প্রার্থী ইন্জিনিয়ার মোহাম্মদ হোসাইন। 


এই সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটির কেন্দ্রীয় পরিচালক আব্দুল বাতেন, কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান হোসাইন, মহাসচিব মিজানুর রহমান মিজান, সোনারগাঁ ড্রিমসের সাধারণ সম্পাদক তারেক ফয়সাল, পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটির সোনারগাঁ শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকির, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহিবুল, বোরহান, সহ-সভাপতি মনির হোসেন, প্রচার সম্পাদক মোক্তার হোসেন, এডভোকেট সোনিয়া আক্তার, সাংবাদিক আমির হোসেন, সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী মাহমুদুল হাসান, সোনারগাঁ উপজেলা ছাত্রলীগের কৃষ্ণ, সোনারগাঁ পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী হৃদয় সিকদার, পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটির সদস্য রবিন।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেছেন সোনারগাঁ শাখার সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক প্রমূখ।

Contact Form

Name

Email *

Message *

Powered by Blogger.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget